ভোটারবিহীন নির্বাচন করেছিলেন খালেদা জিয়া ও এরশাদ: প্রধানমন্ত্রী

ভোটারবিহীন নির্বাচন করেছিলেন খালেদা জিয়া ও এরশাদ: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ভোটারবিহীন হয়নি, ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছিল, মানুষ ভোট দিয়েছে বলেই ৪ বছর পূর্ণ করতে পেরেছি, ভোটারবিহীন নির্বাচন করেছিলেন বেগম খালেদা জিয়া ও এরশাদ।

শনিবার সন্ধ্যায় সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের এক বৈঠকের সূচনা বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নির্বাচন বানচালে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে।... কিন্তু জনগণ ভোট দিয়েছে বলেই চার বছর পূর্ণ করতে পারলাম। বিএনপি বুলেটে আর আওয়ামী লীগ ব্যালটে বিশ্বাস করে বলেও দাবি করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বুলেট দিয়ে ক্ষমতা দখল করেছে জিয়া... আর দেশ বিক্রির মুচলেকা দিয়ে ক্ষমতায় এসেছে খালেদা জিয়া। তাদের মুখে গণতন্ত্র মানায় না। অবৈধ পথে যারা ক্ষমতা দখল করেছিল, তারা কীভাবে গণতন্ত্রের কথা বলে-সেই প্রশ্নও করেন শেখ হাসিনা। দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আওয়ামী লীগই সব সময় আন্দোলন সংগ্রাম করেছে-সেই বিষয়টিও স্মরণ করে দেন দলটির সভাপতি। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার মানসিক সমস্যা দেখা দিলো কি-না, সেটাও বলতে পারছি না। পরীক্ষা করে দেখা দরকার, তার মাথা ঠিক আছে কি-না।

তিনি বলেন, আমরা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করছি। খালেদা জিয়া বলেছেন, পদ্মা সেতু নাকি জোড়াতালি দিয়ে করা হচ্ছে। তিনি কাউকে পদ্মা সেতুতে উঠতে মানা করেছেন। আমরা দেখবো, খালেদা জিয়া এবং বিএনপি নেতারা পদ্মা সেতুতে ওঠেন কি-না। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা নৌবাহিনীর জন্য সাবমেরিন কিনেছি। খালেদা জিয়া বলেন, তা পানিতে ডুবে গেছে। কিন্তু সাবমেরিন যে পানিতে ডুবে থাকে, এ জ্ঞানটুকুও তার নেই। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া শুধু একটা বিষয়ই ভালো বোঝেন- লুটপাট, অর্থ বানানো, ধ্বংস, মানুষ হত্যা- তিনি এগুলোই কেবল বোঝেন, আর কিছু বোঝেন না। আওয়ামী লীগ সভাপতির সভাপতিত্বে সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে সভাটি শুরু হয়। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সভা চলছিলো।