ভোটার তালিকা হালনাগাদে সময় বাড়িয়ে বিল পাস

ভোটার তালিকা হালনাগাদে সময় বাড়িয়ে বিল পাস

ভোটার তালিকা হালনাগাদ করার সময়সীমা ৩০ থেকে বাড়িয়ে ৬০দিন করে ‘ভোটার তালিকা (সংশোধন) আইন-২০২০’ নামে একটি বিল জাতীয় সংসদে পাস করা হয়েছে।


রোববার (২৬ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বিলটি পাসের প্রস্তাব উত্থাপন করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়।

এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন। অধিবেশনে বিলটি পাসের আগে এটি জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে পাঠানোর প্রস্তাব দেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ও বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্যরা। 

এ বিষয়ে আলোচনায় অংশ নেন জাতীয় পার্টির রওশন আরা মান্নান এবং বিএনপির মো. হারুনুর রশীদ ও ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা। বিরোধী দলীয় সদস্যদের প্রস্তাব কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।

পড়ুন>> এনআরসি ইস্যু নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে বাংলাদেশ

পাস হওয়া বিলে ভোটার তালিকা আইনের ১১ ধারার ১ উপধারা সংশোধনের প্রস্তাব করা হয়েছে। এতে জাতীয় ভোটার দিবসের সঙ্গে মিল রেখে কম্পিউটার ডাটাবেজে সংরক্ষিত বিদ্যমান ভোটার তালিকা হালনাগাদ করার সময়সীমা প্রতিবছর ২ থেকে ৩১ জানুয়ারির পরিবর্তে ‘২ জানুয়ারি থেকে ২ মার্চ’ প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। 

বিলটি আইনে পরিণত হলে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করার সময়সীমা ৬০দিন হবে।
 
গত ২০ জানুয়ারি জাতীয় সংসদে বিলটি উত্থাপনের পর তা অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়। কমিটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে বিলটি পাসের সুপারিশ করে গত ২৩ জানুয়ারি সংসদে প্রতিবেদন জমা দেয়।