ভালো করলে সবাইকেই সুযোগ দেওয়া হবে: নান্নু

ভালো করলে সবাইকেই সুযোগ দেওয়া হবে: নান্নু

বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা এখন বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন। জাতীয় দলকে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টের জন্য প্রস্তুতি নিতে হচ্ছে। অন্যদিকে এইচপি দল ম্যাচ খেলছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। এবার প্রাথমিক বাছাই ক্রিকেটাররা দুই দলে ভাগ হয়ে আগামীকাল থেকে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। এরপর আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বিসিবি একাদশ।


যারা প্রস্তুতিমূলক ম্যাচগুলোতে ভালো করবে তাদের সবাইকেই সুযোগ দেওয়া হবে বলে জানালেন বাংলাদেশ দলের নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান। 

নান্নু বলেন, ‘পাইপলাইনের যে প্লেয়ারদের কথা আমরা বলছি তাদের নিয়ে সেকেন্ড টিম রেডি করাই আমাদের উদ্দেশ্য। এখানে অনেকগুলো প্লেয়ারের ভালো পারফরম্যান্স হয়েছে এবং কিছু প্লেয়ার অবশ্যই ভালো করেছে, চেষ্টা করেছে। এখান থেকেই রেডি করে রাখা মানেই তো ন্যাশনাল টিমের জন্য যাদেরকে দরকার হবে তাদেরকে অবশ্যই প্রোভাইড করা।’
এইচপি দলের বাইরেও ক্রিকেটারদের আলাদা পুল করা আছে। প্রয়োজনে সেখান থেকেও ক্রিকেটারদের নিয়ে আসা হবে। নান্নু বলেন, ‘আমাদের ৫৫ জনের একটা পুল করা আছে, এখানে ‘এ’ টিম খেলছে, ওখানে এইচপি খেলছে, ন্যাশনাল টিম খেলছে। তো তিনটা ফরম্যাটের তিনটা টিম আমাদেরকে রেডি করতে হচ্ছে। এখান থেকেই কিন্তু অনুশীলনের টিমটা (বিসিবি একাদশ) দেওয়া হয়েছে। টার্গেট সবার জন্যই প্ল্যাটফর্মটা দেওয়া। যে যেখানে ভালো খেলবে তাদেরকে সবসময় উপরের দিকে আনা হবে।’
 
জাতীয় দলের পাইপলাইনে যেন ক্রিকেট সংকট না থাকে সেজন্য বিসিবি সতর্ক। জাতীয় দলের এই নির্বাচক বলেন, যদি দরকার হয় দ্রুতই ক্রিকেটারদের জাতীয় দলে ডাকা হবে। যাকে যখন দরকার হবে ইমিডিয়েট রিপ্লেস করা হবে। কারণ, সবার আগে প্রাধান্য তো ন্যাশনাল টিমের, তারপর ‘এ’ টিম, এরপর এইচপি দল।
আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টের জন্য দল চূড়ান্ত হয়েছে বলে জানান প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে টেস্ট দল দেওয়া হবে। আর আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট চলাকালীন ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য দল ঘোষণা করবে বিসিবি।