ভারতে পালানোর পথে উত্তর সিটির কাউন্সিলর মিজান গ্রেফতার

ভারতে পালানোর পথে উত্তর সিটির কাউন্সিলর মিজান গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার : চলমান ‘শুদ্ধি অভিযানের’ অংশ হিসেবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের আলোচিত নেতা হাবিবুর রহমান মিজানকে আটক করেছে র‌্যাব। র‌্যাব সদর দপ্তরের সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমান গতকাল শুক্রবার বলেন, হাবিবুর রহমান মিজান পাশের দেশে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টায় ছিলেন। গত রাতে শ্রীমঙ্গল থেকে তাকে আটক করা হয়। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩২ নম্বর ওয়র্ডের কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান মিজান মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। হত্যা, মাদকের কারবার,চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অভিযোগের সঙ্গে জড়িয়ে আছে তার নাম। দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের চলমান ‘শুদ্ধি অভিযানের’ মধ্যে হঠাৎ করেই লাপাত্তা হন মিজান। গত সোমবার রাতে মোহাম্মদপুরের আওরঙ্গজেব রোডে মিজানের ফ্ল্যাটে অভিযান চালায় র‌্যাব।

 কিন্তু সেখানে তাকে পাওয়া যায়নি। মোহাম্মদপুরের অনেকে এই ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে চেনেন ‘পাগলা মিজান’ হিসেবে। কথিত আছে, কয়েক দশক আগে একবার পুলিশের তাড়া খেয়ে পুকুরে নেমেছিলেন মিজান। পরে গ্রেফতার এড়াতে পরনের পোশাক খুলে রেখে তিনি পুকুর থেকে উঠে আসেন, সেই থেকে তার ওই নাম। শুক্রবার সকালে আওরঙ্গজেব রোডে মিজানের বাড়িতে গেলে সেখানে কেয়ারটেকার সোহরাব বলে, ওই বাড়িতে মিজান তার স্ত্রী, ছেলে ও ছেলের বউকে নিয়ে থাকেন। গত সোমবার থেকে মিজান বাড়িতে নেই। ওইদিনই র‌্যাব এসে তাকে খুঁজে গিয়েছিল।

‘গতকাল (বৃহস্পতিবার) স্যারের ছেলে মামুন বাসা থেকে বের হয়ে যান। তিনিও ফেরেন নাই। আজকে (শুক্রবার) সকালে ম্যাডামও বাড়ি থেকে বের হয়ে গেছেন। এখন মামুন সাহেবের স্ত্রী রয়েছেন শুধু।’ লালমাটিয়ায় ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মিজানের অফিসেও অভিযান চালানো হয়েছে জানিয়ে র‌্যাব-২ অধিনায়ক আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে হত্যা, মাদকের কারবারসহ যেসব অভিযোগ রয়েছে, সেই মামলাগুলির নথিপত্র নিয়ে আমরা পর্যালোচনা করব। তবে বিহারি ক্যাম্পে তার মাদকের কারবারের অভিযোগটি খুব সুনির্দিষ্ট।’ পুলিশ জানায়, সোমবার বাসা থেকে বেরিয়ে লাপাত্তা হওয়ার পর বুধবার রাতে হানিফ পরিবহনের বাসে ঢাকা ছাড়েন কাউন্সিলর মিজান। শ্রীমঙ্গলে এক বন্ধুর শ্বশুরবাড়িতে উঠেছিলেন তিনি, সেখান থেকেই তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।