ভারতীয় দম্পতির বিরুদ্ধে বাংলাদেশি তিন নারীকে পাচার ও নির্যাতনের অভিযোগ

ভারতীয় দম্পতির বিরুদ্ধে বাংলাদেশি তিন নারীকে পাচার ও নির্যাতনের অভিযোগ

সিঙ্গাপুরে তিন বাংলাদেশি নারীকে পাচার ও নির্যাতন করার দায়ে অভিযুক্ত হয়েছে ভারতীয় দম্পতি। খবর ডয়চে ভেলের।
প্রতি মাসে ৬০ হাজার টাকা বেতন দেয়ার কথা বলে বাংলাদেশ থেকে তাদেরকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যায় এই ভারতীয় দম্পতি।
পরে তাদের পাসপোর্ট ছিনিয়ে নিয়ে আটকে রেখে এই ভারতীয় দম্পতির নাইটক্লাবে বিনা বেতনে নাচতে বাধ্য করা হয়।
তিন বাংলাদেশির একজনকে জোর করে দেহ ব্যবসাতে নামানো হয় বলেও এই দুই ভারতীয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সিঙ্গাপুরে ২০১৫ সাল থেকে কার্যকর হওয়া মানবপাচার আইনে এই দম্পতির বিরুদ্ধে অভিযোগ করে ভুক্তভোগী তিন নারী।
আগামী ১৯ ডিসেম্বর তাদের শাস্তির মেয়াদ ঘোষণা হবে। তারা সর্বোচ্চ ১০ বছরের জেল ও বেত্রাঘাতের শাস্তি পেতে পারেন।
মানবপাচার বিরোধী সংগঠনগুলোর মতে, এর মাধ্যমে মানবপাচারে জড়িতদেরকে কঠোর বার্তা দিতে যাচ্ছে সিঙ্গাপুর কর্তৃপক্ষ।
এই বিষয়ে সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের সঙ্গে কথা বলেন মানবপাচার বিরোধী সংগঠন হাগার ইন্টারন্যাশনালের প্রধান মাইকেল চিয়াম।
তিনি বলেন, চাকরিদাতাদের কখনোই ভাবা উচিত নয় মানবপাচারের মতো অপরাধ করে তারা আইনকে ফাঁকি দিতে পারবে।