ব‌রিশা‌লে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতিতে নৌযান শ্রমিকরা

ব‌রিশা‌লে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতিতে নৌযান শ্রমিকরা

বেতন-ভাতা বাড়ানো ও নদীপথে চাঁদাবাজি বন্ধসহ ১১ দফা দাবিতে ব‌রিশা‌লে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি শুরু করেছে নৌযান শ্রমিকরা।


সোমবার (১৫ এপ্রিল) দিনগত রাত ১২টা এক মিনিট থেকে তারা এ কর্মবিরতি শুরু করেছেন বলে জানিয়েছেন নৌযান শ্র‌মিক ফেডা‌রেশনের কেন্দ্রীয় ক‌মি‌টির সদস্য ও ব‌রিশাল অঞ্চ‌লের সভাপ‌তি আবুল হো‌সেন।

আবুল হো‌সেন জানান, বেতন-ভাতা বাড়ানো, নিরাপত্তা ও নদীপথে চাঁদাবাজি বন্ধসহ ১১ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের কর্মবিততি চলবে। সোমবার রাত ১২টার পর থেকে সকল ধরনের পণ্য ও যাত্রীবাহী নৌযানে ধর্মঘট ডেকেছে।

এসময় ঢাকায় শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানের সঙ্গে আলোচনা করে কর্মবিরতি প্রত্যাহারের বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি শুরু করেছে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন। একটি মহল এ ধরনের বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। দাবি না মানা পর্যন্ত আমাদের কর্মসূচি চলবে।

এ‌দি‌কে ধর্মঘ‌টের কার‌ণে সকাল থে‌কে কোনো নৌযান ব‌রিশাল নদীবন্দর ত্যাগ ক‌রে‌নি।  অভ্যন্তরীণ রু‌টের নৌযানগু‌লো মাঝনদী‌তে নি‌য়ে নোঙ্গর করে রাখা হ‌য়ে‌ছে। ফ‌লে অভ্যন্তরীণ রু‌টের যাত্রী‌দের ভোগা‌ন্তি‌তে পড়তে হ‌য়ে‌ছে। কেউ বিকল্পভাবে যাত্রা কর‌লেও বে‌শিরভাগ যাত্রী‌কেই ফি‌রে যেতে হ‌য়ে‌ছে। তবে, ঢাকা থে‌কে সোমবার রা‌তে ছে‌ড়ে আসা লঞ্চগু‌লো যথাসম‌য়ে ব‌রিশাল নদীবন্দ‌রে নোঙ্গর ক‌রে‌ছে এবং ভায়া রু‌টের লঞ্চগু‌লোও ব‌রিশাল হ‌য়ে শেষ গন্ত‌ব্যের উ‌দ্দে‌শ্যে ছেড়ে গে‌ছে।

এ‌দি‌কে নৌ ধর্মঘট চল‌লেও ঢাকা-ব‌রিশাল রু‌টে বেশ ক‌য়েক‌টি কোম্পা‌নি তা‌দের লঞ্চ চালনা কর‌বেন ব‌লে প্রাথ‌মিকভা‌বে মা‌লিক স‌মি‌তি সূ‌তে জানা‌ গেছে।