ব্যাংক থেকে সরকারের ঋণ

ব্যাংক থেকে সরকারের ঋণ

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, বর্তমান সরকারের গত ১০ বছরে (২০০৯-২০১৯) বাংলাদেশ ব্যাংক ও তপশিলী ব্যাংক থেকে মোট ১৩ লাখ ২৭ হাজার ৬২৪ কোটি টাকা ঋণ গ্রহণ করেছে এবং ১১ লাখ ৩১ হাজার ৮৪০ হাজার কোটি টাকা ঋণ পরিশোধ করেছে। অর্থাৎ এই সময়কালে মোট ১ লাখ ৯৫ হাজার ৭৮৩ কোটি টাকা নিট ঋণ গ্রহণ করেছে। গত বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি একথা জানান। সরকার পরিচালনার ব্যয় মেটাতে ব্যাংকিং খাতের ওপর এত বেশি নির্ভরশীলতা অতীতে কোনো নজির নেই বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এ ছাড়া ব্যাংকিং খাত থেকে বেপরোয়া ঋণ গ্রহণ সরকারের অর্থ ব্যবস্থা ব্যাংক ঋণ নির্ভর হওয়ার সুস্পষ্ট ইঙ্গিত বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদ ও বিশেষজ্ঞরা। সরকারের চাহিদা মেটাতে গিয়ে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলো ইতিমধ্যে বেসরকারি খাতে শিল্প বিনিয়োগে বড় আকারের ঋণ দেয়া পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছে। ব্যাংকিং খাত থেকে সরকারের মাত্রাতিরিক্ত ঋণ গ্রহণ সার্বিকভাবে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের পথে বাধা সৃষ্টি করবে। এ মুহূর্তে সরকার তার প্রয়োজনীয় ব্যয় মেটাতে বেশি বেশি ধার করছে। ব্যাংকের বাইরে অন্যান্য উৎস থেকে তুলনামূলকভাবে কম ঋণ পাওয়ায় সরকার ব্যাংক ঋণের প্রতি অতিমাত্রায় নির্ভর হয়ে পড়ছে। তবে সরকার একটু বেশি ঋণ নিলেও মুদ্রা সরবরাহ কিংবা অভ্যন্তরীণ ঋণের প্রবৃদ্ধি যাতে মুদ্রানীতির লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে থাকে সে বিষয়ে সতর্ক রয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।