ব্যক্তিগত বৈধ অস্ত্র অন্যের নিরাপত্তায় ব্যবহার করলে ব্যবস্থা

ব্যক্তিগত বৈধ অস্ত্র অন্যের নিরাপত্তায় ব্যবহার করলে ব্যবস্থা

স্টাফ রিপোর্টার : কেউ লাইসেন্স করা ব্যক্তিগত বৈধ অস্ত্র অন্যের নিরাপত্তায় ব্যবহার করলে কিংবা প্রকাশ্যে তা প্রদর্শন করলে আইনানুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। গতকাল সোমবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক প্রজ্ঞাপনে এ কথা জানিয়েছে। এতে বলা হয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা ‘আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স প্রদান, নবায়ন ও ব্যবহার নীতিমালা, ২০১৬’ এর অনুচ্ছেদ ২৫ (গ) অনুযায়ী আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্সধারী কোনো ব্যক্তি নিজের জন্য ছাড়া অন্য কোনো ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বা সম্পত্তি রক্ষার জন্য অস্ত্রধারী প্রহরী হিসেবে নিয়োজিত হতে পারবেন না। সেক্ষেত্রে তার অস্ত্রের লাইসেন্স তাৎক্ষণিকভাবে বাতিলযোগ্য হবে।’ নীতিমালার এই বিধান লঙ্ঘন করে কোনো কোনো ব্যক্তি ব্যক্তিগত নিরাপত্তার জন্য লাইসেন্সপ্রাপ্ত নিজের নামের আগ্নেয়াস্ত্র বেসরকারি নিরাপত্তা সংস্থায় নিরাপত্তা রক্ষী হিসেবে বা অন্য ব্যক্তির দেহরক্ষী হিসেবে নিয়োজিত রয়েছেন।

 প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে, নীতিমালার অনুচ্ছেদ ২৫ (ক) অনুযায়ী ‘কোনো ব্যক্তি স্বীয় লাইসেন্সে এন্ট্রিকৃত অস্ত্র আত্মরক্ষার নিমিত্তে নিজে বহন/ব্যবহার করতে পারবে। তবে অন্যের ভীতি/বিরক্তি উদ্রেক করতে পারে এরূপভাবে অস্ত্র প্রদর্শন করা যাবে না।’ নীতিমালা লঙ্ঘন করে কোনো কোনো ব্যক্তি প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন করে জনমনে ভীতি ও আতঙ্ক সৃষ্টির প্রয়াস চালাচ্ছেন। এই অবস্থায় ‘অস্ত্র আইন, ১৮৭৮’ কঠোরভাবে অনুসরণ এবং বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহার রোধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নীতিমালা অনুযায়ী ব্যক্তিগত নিরাপত্তার জন্য লাইসেন্সপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের বেসরকারি সংস্থার নিরাপত্তা রক্ষী হিসেবে বা অন্য ব্যক্তির দেহরক্ষী হিসেবে নিয়োজিত হওয়া থেকে বিরত থাকা এবং প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন না করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয় প্রজ্ঞাপনে। অন্যথায় আদেশ লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট বিধান অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।