বেনজেমার গোলে কষ্টার্জিত জয় পেল রিয়াল মাদ্রিদ

বেনজেমার গোলে কষ্টার্জিত জয় পেল রিয়াল মাদ্রিদ

চ্যাম্পিয়নস লিগে পিএসজির বিপক্ষে হারের যন্ত্রণা নিয়ে সেভিয়ার মাঠে গিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। হুয়ান র‌্যামন সানচেজ স্টেডিয়ামে তাদের জন্য অপেক্ষায় ছিলেন হুলেন লোপেতেগি। যাকে কী-না তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে ছাড়তে হয়েছিল সান্তিয়াগো বার্নাব্যু। লস ব্লাঙ্কোসদের বিপক্ষে একটি জয় সেভিয়ার স্প্যানিশ কোচকে ভুলিয়ে দিত পারতো সেই তিক্ত অভিজ্ঞতা। কিন্তু দুর্দান্ত খেলেও করিম বেনজেমার গোলে রিয়ালের বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে হেরেছে আন্দালুসিয়ান গ্রেটরা।
 


রাশিয়া বিশ্বকাপের সময় বিতর্কিতভাবে স্পেনের জাতীয় দলের কোচ থেকে বরখাস্ত হওয়ার পর রিয়ালের দায়িত্ব কাঁধে নেন লোপেতেগি। সেখানেও নিজের চাকরি বাঁচাতে পারেননি ৫৩ বছর বয়সী কোচ। ২০১৮-১৯ মৌসুম শেষ হওয়ার আগেই তাকে সান্তিয়াগো বার্নাব্যু ছাড়তে হয়। চলতি মৌসুমে তিনি যোগ দিয়েছেন সেভিয়াতে।

কিছু সময় রিয়ালে কাটানোর ফলে সার্জিও রামোস-গ্যারেথ বেলদের নাড়ি নক্ষত্র প্রায় চেনা লোপেতেগির। যার কারণে হয়তো তার শিষ্যরা দুর্দান্তভাবে আটকে রাখার পাশাপাশি দারুণসব আক্রমণে ব্যতিব্যস্ত করে রেখেছিল অলহোয়াইটদের শিবির। বল পজিশন থেকে শুরু করে পাস, গোলমুখে শট; সব জায়গায় এগিয়ে ছিল সেভিয়া।

অন্যদিকে রিয়াল প্রথম গোলের প্রথম সুযোগ পায় ৩৫ মিনিটে। এর ৪ মিনিট পরে দানি কারভাহালও সুযোগ পেয়েছিলেন গোলের। কিন্তু সেভিয়া গোলরক্ষককে পরাস্ত করা যায়নি। প্রথমার্ধটা গোলশূন্য ব্যবধানে শেষের পর বিরতিতে যায় দু’দল।

দ্বিতীয়ার্ধেও আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের লড়াই চলছিল সমানতালে। কিন্তু বেনজেমাকে আর আটকে রাখা যায়নি। ৬৪ মিনিটে হেড থেকে গোল করে রিয়ালকে এগিয়ে দেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। ম্যাচের বাকী সময় এ ব্যবধান ধরে রেখে তিন পয়েন্ট আদায় করে নেয় জিনেদিন জিদানের দল।

এ জয়ে ৫ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে লা-লিগার পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে ওঠে এসেছে রিয়াল মাদ্রিদ। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় শীর্ষে আছে অ্যাথলেটিক বিলবাও। ১০ পয়েন্ট নিয়ে গ্রানাডা আছে তিনে। সমান পয়েন্ট নিয়ে পরের স্থানগুলোতে আছে রিয়াল সোসিয়েদাদ, সেভিয়া ও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। ৮ পয়েন্ট নিয়ে সাতে ভিয়ারিয়াল। ৭ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থানে আছে গত আসরের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা।