বেতন বৈষম্য নিরসনসহ ৮ দফা দাবিতে মানববন্ধন

বেতন বৈষম্য নিরসনসহ ৮ দফা দাবিতে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার : বেতন বৈষম্য নিরসনে অভিন্ন নিয়োগবিধি বাস্তবায়ন, টাইম স্কেল-সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহালসহ আট দফা দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে ১১ থেকে ২০ গ্রেডের সরকারি চাকরিজীবীদের সংগঠন সম্মিলিত অধিকার আদায় ফোরাম। গতকাল শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ১১ থেকে ২০ গ্রেডের বঞ্চিত লাখ লাখ কর্মচারীদের বাদ দিয়ে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা সম্ভব নয়। কেন্দ্রীয় আহ্বায়হক পরিষদের আহ্বায়ক মিরাজুল ইসলাম বলেন, বেতন বৈষম্য নিরসনসহ নতুন পে-স্কেল সংশোধন করে গ্রেড অনুযায়ী বেতন স্কেলের পার্থক্য সমাহারে নির্ধারণ ও গ্রেড সংখ্যা কমাতে হবে। টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহালসহ বেতনের জ্যেষ্ঠতা বজায় রাখতে হবে। দাবিগুলো হলো- গ্রেড অনুযায়ী বেতন স্কেলের পার্থক্য সমহারে নির্ধারণ ও গ্রেড সংখ্যা কমাতে হবে।

 এক ও অভিন্ন নিয়োগবিধি বাস্তবায়ন করতে হবে। সব পদে পদোন্নতি বা পাঁচ বছর পর পর উচ্চতর গ্রেড দিতে হবে। টাইম স্কেল, সিলেকশন গ্রেড, পুনর্বহালসহ বেতন জ্যেষ্ঠতা বজায় রাখতে হবে। সচিবালয়ের ন্যায় পদবি ও গ্রেড পরিবর্তন করতে হবে। সব ভাতা চাহিদা অনুযায়ী সমন্বয় করতে হবে। এছাড়া নিম্ন বেতন ভোগীদের জন্য রেশন, শতভাগ পেনশন চালুসহ পেনশন গ্রাচুইটি হার এক টাকা সমান ৫০০ টাকা করতে হবে। কাজের ধরণ অনুযায়ী পদের নাম ও গ্রেড একীভূত করতে হবে। কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক পরিষদের সদস্য সচিব মাহমুদুল হাসান বলেন, প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের পুঞ্জীভূত অসন্তোষ ও বিরাজমান ক্ষোভ নিরসনের জন্য বেতন বৈষম্য নিরসনসহ আট দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান।এ সময় মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয়, মহানগর, বিভাগ, জেলা, উপজেলা ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা।