‘বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা’ জিন্নাতকে নিয়ে সংসদে আলোড়ন

‘বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা’ জিন্নাতকে নিয়ে সংসদে আলোড়ন

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস অনুযায়ী, বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা জীবিত মানুষ তুরস্কের সুলতান কশেন। তার উচ্চতা ৮ ফুট ৩ ইঞ্চি। তিনি ১৯৮২ সালে জন্মগ্রহণ করেন।

২০০৯ সালের সেপ্টেম্বরে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস তাকে পৃথিবীর সবচেয়ে দীর্ঘকায় ব্যক্তির স্বীকৃতি দেয়।

কশেনের চাইতে তিন ইঞ্চি লম্বা এক যুবকের সন্ধান মিলেছে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামে। তার নাম জিন্নাত আলী। তিনি ওই এলাকার বর্গা চাষি আমির হামজার ছেলে। বয়স তার ২২ বছর। তার বর্তমান উচ্চতা ৮ ফুট ৬ ইঞ্চি।

বুধবার (২৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদ ভবনে এসেছিলেন জিন্নাত আলী। উদ্দেশ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করা। বর্তমানে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী তার চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

কক্সবাজার-৩ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য সাইমুর সরওয়ার কমল তাকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করানোর জন্য নিয়ে আসেন। সংসদে আসার সঙ্গে সঙ্গে চারদিকে হৈ চৈ পড়ে যায়। তিনি যেখানেই যাচ্ছিলেন অসংখ্য মানুষ তাকে ঘিরে ধরছিলেন। তাকে এক নজর দেখতে ভিড় করেন মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সংসদ সদস্যরাও। জিন্নাত আলী যখন সংসদ থেকে বের হয়ে যাচ্ছিলেন তখন সংসদে প্রবেশের গেটে তাকে মাথা নিচু করে বের হতে দেখা যায়। তার সঙ্গে ছবি তোলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক ও অনুপম শাহজাহান জয়।
 
শুধু তাই নয়, জিন্নাত যখন সংসদের ক্যান্টিনে যান তখন অন্যান্য দর্শণার্থীদের সঙ্গে সংসদ সদস্যরাও ভিড় করেন তাকে দেখার জন্য।
 
জিন্নাতের সঙ্গে ছবি তোলার পর সঙ্গে কথা বলেন জুনাইদ আহমেদ পলক। তিনি বলেন, জিন্নাত একটু অসুস্থ। আমি তাকে কিছু আর্থিক সহায়তা করলাম। প্রধানমন্ত্রী তার চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন।
 
প্রধানমন্ত্রী বিনামূলে জিন্নাতের চিকিৎসার নির্দেশনা দিয়েছেন। তার জন্য একটি বাড়ি করে দেওয়ার কথাও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।  এসব তথ্য জানিয়েছেন সংসদ সদস্য সাইমুর সরওয়ার কমল।