বিশ্বায়নের সঙ্গে তাল মেলাতে চাই প্রযুক্তি দক্ষতা: পলক

বিশ্বায়নের সঙ্গে তাল মেলাতে চাই প্রযুক্তি দক্ষতা: পলক

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, অবারিত প্রযুক্তির যুগে নিজেদের বিশ্বায়নের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হলে দরকার প্রযুক্তিগত দক্ষতা, সৃজনশীলতা এবং উদ্ভাবনী ক্ষমতা বাড়ানো। বিশ্বব্যাপী মানুষের জীবনধারা ডিজিটাল হওয়ার ফলে শুধু অতীতের ধারাবাহিকতা বা দক্ষতার উপর নির্ভর করে আগামী দিনের পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে টিকে থাকা যাবে না। 


সোমবার (৭ অক্টোবর) আরমেনিয়ার রাজধানী ইয়েরেভানেতে চলমান তিন দিনব্যাপী ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজিতে (ডব্লিউসিআইটি) বাংলাদেশ স্টলের উদ্বোধন করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক। 

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, অবারিত তথ্যপ্রযুক্তির যুগে  নিজেদের বিশ্বায়নের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হলে প্রযুক্তিগত দক্ষতা, সৃজনশীলতা, উদ্ভাবনী ক্ষমতা বাড়াতে হবে। বিশ্বব্যাপী মানুষের জীবনধারা ডিজিটাল হওয়ার ফলে শুধু অতীতের ধারাবাহিকতা বা দক্ষতার উপর নির্ভর করে আগামী দিনের পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে টিকে থাকা যাবে না। তাই প্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন জাতি গঠনে সমন্বিত প্রচেষ্টায় এগিয়ে যেতে হবে বলে।  

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিভিন্ন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে বাংলাদেশ দ্রুত ডিজিটাইজ হচ্ছে। বাংলাদেশ দ্রুত প্রযুক্তিনির্ভর মধ্য আয়ের দেশ হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে এবং ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশের লক্ষ্য অর্জনে সফল হবে।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ডব্লিউসিআইটি এর মহাসচিব ডক্টর এইচ জেমসসহ ফোরামের অন্য কর্মকর্তাসহ বাংলাদেশ প্রতিদিন দলের কর্মকর্তারা।
 
এর আগে, প্রতিমন্ত্রী পলক ডব্লিউসিআইটিতে অংশ নেওয়া অন্য মন্ত্রীদের সঙ্গে আরমেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পশিনিয়ানের সঙ্গে বৈঠক করেন। এছাড়া আর্মেনীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেহরব মনতসকন্যান এবং ডব্লিউসিআইটিএস এর মহাসচিব ডক্টর এইচ জেমসের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। এ সময় প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশের আইসিটি খাতে গত ১০ বছরে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ ও এগিয়ে যাওয়ার গল্প তাদের কাছে তুলে ধরেন।
 
উল্লেখ্য, ডব্লিউসিআইটি হচ্ছে ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিসেস এর একটি এলায়েন্স। আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক আরমেনিয়ার রাজধানী ইয়েরেভানে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজি-২০১৯ (ডব্লিওসিআইটি) এর বিভিন্ন সেশনে আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণের জন্য বর্তমানে আরমেনিয়ায় অবস্থান করছেন।