বিজিএমইএ ভবন অবৈধ হওয়ার দায় ইপিবির: সিদ্দিকুর

বিজিএমইএ ভবন অবৈধ হওয়ার দায় ইপিবির: সিদ্দিকুর

তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ’র ভবন অবৈধ হওয়ার জন্য রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো-ইপিবি দায়ী বলে অভিযোগ করেছেন বিজিএমইএ সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান।

তিনি বলেন, তৎকালীন সময়ে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আমাদের জমি দিয়েছিলেন। কিন্তু ইপিবি আমাদের রাস্তার পাশে জায়গা না দিয়ে তারা হাতিরঝিলের মধ্যে জায়গা বুঝিয়ে দেয়। এর দায়ভার তাদের নিতে হবে।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) উত্তরায় বিজিএমইএ’র নতুন ভবনে পোশাক শিল্প বিষয়ে অর্থনেতিক রিপোর্টারদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন সিদ্দিকুর রহমান।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ২০০৪ সাল থেকে আমরা ওই ভবনে ছিলাম, অনেক স্মৃতি রয়েছে, সেখান থেকে ছেড়ে আসা কষ্টের। তবে তৎকালীন সময়ে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আমাদের জমি দিয়েছিলেন ভালো উদ্দেশে। তিনি চেয়েছিলেন রাস্তার পাশে সোনারগাঁও সংলগ্ন স্থানে আমাদের ভবন গড়ে উঠবে। কিন্তু ইপিবি আমাদের জমি বুঝিয়ে দেয় ঝিলের মধ্যে। তাদের কারণেই আজ ওই ভবন অবৈধ হয়ে যায়। এজন্য ইপিবি দায়ী, প্রয়োজনে আমরা তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবো।

সিদ্দিকুর রহমান বলেন, আমি ৩ বছর ৭ মাস বিজিএমইএ’র সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। কোনো জায়গায় ব্যর্থ হয়ে ফিরে আসিনি। সবচেয়ে বড় সফলতা আমরা অবৈধ ভবন থেকে বৈধ ভবনে আসতে পেরেছি। আগামী পরিষদের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ এ খাতের ইমেজ বাড়ানো, গ্রিন ফ্যাক্টরি তদারকি করা।

এ সময় তিনি নতুন কমিটির জন্য শুভ কামনা করেন।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএ’র সিনিয়র সহ-সভাপতি ফারুক হাসান, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ নাসির, এসএম মান্নান কচিসহ বিজিএমইএ’র পরিচালকরা।