বিক্ষোভ কর্মসূচিতে লাঠি নিয়ে তেড়ে গেলেন মোদি!

বিক্ষোভ কর্মসূচিতে লাঠি নিয়ে তেড়ে গেলেন মোদি!

করতোয়া ডেস্ক : ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধন বিল নিয়ে অভিনব প্রতিবাদ জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। সংসদের ভেতরে ও বাইরে সমানভাবে বিলের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন এই দল। সংসদের বাইরে বিলের প্রতিবাদে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি’র মুখোশ পরে লাঠি হাতে নিজের দলের সাংসদদের দিকে তেড়ে ব্যঙ্গ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে।সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এ ঘটনার একটি ভিডিওতে দেখা যায়, সাংসদদের দিকে তেড়ে যাচ্ছেন শান্তনু সেন। অন্য সাংসদরা তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। বেশ খানিকটা সময় ধরে চলে এই প্রতিবাদ।

পরে তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদরা বলেন, মোদি সরকার যেভাবে রাজনৈতিক বিরোধীদের এবং সাধারণ মানুষের ওপর আক্রমণ চালাচ্ছে সেটা তুলে ধরতেই এই প্রতিবাদ। শুধু সংসদের বাইরে নয় ভেতরেও সরব হয়েছে তৃণমূল। সংশোধিত এই নাগরিকত্ব বিলে অনুযায়ী, ভারতের নাগরিকত্ব পেতে হলে এগারো বছর নয় এখন থেকে ছয় বছর ভারতে থাকার সুযোগ পাবেন অভিবাসীরা। তাছাড়া আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আসা হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন ও পার্সি সম্প্রদায়ের মানুষরা কোনও প্রমাণপত্র দেখাতে না পারলে নাগরিক হতে পারবেন। এর আগেও অনেকবার অভিনব কায়দায় প্রতিবাদ করতে দেখা গেছে পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদদের। কখনও বা গায়ে কালো চাদর দিয়ে কখনও অন্যভাবে প্রতিবাদে করেছেন পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দলটির সাংসদরা।