বিক্রয় ডটকমের বিজ্ঞাপনে মোটরসাইকেল হারালেন আল-আমিন

বিক্রয় ডটকমের বিজ্ঞাপনে মোটরসাইকেল হারালেন আল-আমিন

অনলাইনে ব্যবহৃত পণ্যের কেনা-বেচার প্ল্যাটফর্ম বিক্রয় ডটকমে দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা মূল্যের মোটরসাইকেল বিক্রির বিজ্ঞাপন দেন আল-আমিন নামে এক যুবক।

এই বিজ্ঞাপন দেখে মোটরসাইকেল কেনার নাটক সাজিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে মোটরসাইকেলটি ছিনতাই করে একটি চক্র। সেই ছিনতাইকারী চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতারসহ মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।


শনিবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের হাজীরহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম নাজমুল কাদের।

তিনি বলেন, মামলার বাদী আল-আমিন তার ব্যবহৃত ১৫০ সিসি মোটরসাইকেলটি বিক্রির জন্য বিক্রয় ডটকমে একটি বিজ্ঞাপন প্রকাশ করেন। সেই বিজ্ঞাপন দেখে প্রতারক চক্রের সাকিব নামে এক সদস্য আল-আমিনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করেন। মোটরসাইকেলটি কেনার আগ্রহ প্রকাশ করে ২৮ জানুয়ারি আল-আমিনকে মুচির মোড় হজ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সামনে ডেকে নেন। সেখানে উভয়ে আলাপচারিতা শেষে ট্রায়াল দেয়ার কথা বলে সাকিব নিজে সামনে বসে এবং আল-আমিনকে পেছনে নিয়ে মোটরসাইকেলটি চালিয়ে হাজীরহাট থানা মোড় রংপুর-সৈয়দপুর মহাসড়কে পৌঁছে মামাকে ফোন দেয়ার কথা বলেন। এ সময় আল-আমিন গাড়ি থেকে নেমে পড়েন এবং তার ব্যবহৃত ১০ হাজার টাকা মূল্যের মোবাইল ফোনটি সাকিবকে কথা বলার জন্য হাতে দেন। সুযোগ বুঝে মোবাইল হাতে নিয়ে দ্রুতগতিতে সেখান থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যান সাকিব।

ওসি আরও জানান, এই ঘটনায় বাদী হয়ে আল-আমিন ৮ মার্চ হাজীরহাট থানায় একটি মামলা করেন। মামলার সূত্র ধরে ছিনতাই চক্রের সক্রিয় সদস্য লাভলু মিয়া ওরুফে সাকিব (২৩), রাকিব রেদওয়ান মৃন্ময় (২০) ও মাহবুব আলম রিপনকে (৪০) মোটরসাইকেলসহ গ্রেফতার করা হয়। তাদের স্বীকারোক্তিতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ছিনতাই হওয়া মোবাইল ফোনসহ আরও চারটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত তিনজনের মধ্যে দুইজন রংপুরের এবং একজন নীলফামারীর সৈয়দপুরের বাসিন্দা বলেও জানান ওসি একেএম নাজমুল কাদের।