‘বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব দুর্নীতিগ্রস্ত বলেই জনগণ ভোট দেয়নি’

‘বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব দুর্নীতিগ্রস্ত বলেই জনগণ ভোট দেয়নি’

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিএনপির শীর্ষে যারা নেতৃত্ব দিচ্ছেন তারা দুর্নীতিগ্রস্ত, সাজাপ্রাপ্ত এবং পলাতক আসামি। জনগণ সে কারণেই নির্বাচনে তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে।

তিনি বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এতিমের টাকা লুটের অভিযোগে সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেলে আছেন। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান হত্যা, দুর্নীতি, মানিলন্ডারিংসহ একাধিক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি।

শনিবার (১২ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের কার্য নির্বাহী সংসদ এবং উপদেষ্টা পরিষদের যৌথ সভার শুরুতে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় আসে তখন দেশের মানুষ কিছু পায়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন হয় বলেই মানুষ ভোট দিয়েছে। গত দশ বছরে জনগণের সেবক হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছে বলেই মানুষ ভোট দিয়ে আবারও বিজয়ী করেছে। জনগণ বুঝতে পেরেছে শুধু আওয়ামী লীগ সরকারে থাকলেই তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়, দেশের উন্নয়ন হয়-মানুষ এটা মনে করে বলেই সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সমর্থন দিয়েছে।

অতীতের মতো এবারও নির্বাচন বানচালের চেষ্টা বিএনপি করেছিল বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, এবারও তাদের নির্বাচন বানচালের প্রচেষ্টা সবাই দেখেছে। ২০১৪ সালের নির্বাচনও তারা বানচালের অপচেষ্টা করেছিল।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ২০১৮ এর নির্বাচনে বিএনপি যদি মনোনয়ন বাণিজ্য না করতো, তাহলে হয়তো তাদের ফলাফল আরও একটু ভালো হতে পারতো। বাণিজ্য ও উইনেবল প্রার্থীদের মনোনয়ন না দেয়ার কারণেই তারা ধরা খেয়েছে।