বাণিজ্যমন্ত্রী জেগে উঠুন

বাণিজ্যমন্ত্রী জেগে উঠুন

ওসমান গনি: বর্তমানে আমাদের স্বাধীন দেশ। আমরা স্বাধীন নাগরিক। পূর্বে ছিল না আমাদের কোন অধিকার, ছিলাম আমরা পরের গোলাম। তাদের অঙ্গুলি ইশারায় চলতে হতো আমাদের। আমরা কলুর বলদের মতো খেটে যাব। গায়ের ঘাম ঝরিয়ে ফসল উৎপাদন করবো আর তার ফল ভোগ করবে বর্বর পাকিস্তান। এটা আমরা মানতে রাজি না। আমাদের কথা একটাই, চাই আমরা স্বাধীন রাষ্ট্র। যেই কথা সেই কাজ। থাকবো না গো বদ্ধ ঘরে দেখব এবার জগৎটাকে। যেকোন মূল্যেই হউক আমাদের স্বাধীনতা অর্জন করতেই হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে পূর্ব পাকিস্তান অর্থাৎ আমরা সবাই একত্র হলাম। শুরু হলো আন্দোলন। বাংলার দামাল ছেলেদের কাছে হেরে গেল পশ্চিম পাকিস্তান। কিন্তু আমাদের দাবি ছিল আমরা স্বাধীনতা চাই। আমরা কারো গোলাম হয়ে থাকতে চাই না। পূর্ব পাকিস্তানের লোকেরা যা উৎপাদন করবে তা পূর্ব পাকিস্তানেই থাকতে হবে। আমাদের উপর কারো মাতাব্বুরি চলবে না। জিনিসপত্র আমরা ফলাব আমরাই আমাদের মধ্যে সুষম বন্টন করে নেব। কিন্তু দেশ স্বাধীনতা লাভ করল। আমরা এখন মুক্ত। কিন্তু আমরা পেলাম কি? আজকে আমাদের দেশের মানুষের এ-কি অবস্থা। খাদ্যে বর্তমানে আমাদের দেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ। কিন্তু কিছু কিছু ব্যক্তি ও গোষ্ঠীর কারণে আজ আমাদের দেশের মানুষের ধরাশায়ী অবস্থা। বর্তমানে দেশের শাসনভার মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের দল আওয়ামীলীগ এর হাতে। এ দেশের মানুষের আশা ও ভরসা ছিল যেহেতু দেশটা শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে স্বাধীন হয়েছে তার দল কে যদি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় বসানো যায়, তাহলে হয়ত দেশের মানুষ আর কিছু পাক বা না পাক কমপক্ষে দুবেলা চারটা ডালভাত খেয়ে বাঁচতে পারবে। এটাই ছিল দেশের সাধারণ মানুষের ভাবনা। কিন্তু হলো কি? আমাদের দেশের প্রাণশক্তি হলো কৃষি।

কিন্তু আজ আমাদের দেশের কৃষকের মাজা ভেঙ্গে দিয়েছে। দেশের কৃষকের অবস্থা আজ খুবই নাজুক। দেশের ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ। আর সেই দলের অঙ্গসংগঠনের কতিপয় নেতা দেশের টাকা -পয়সা নিয়ে ক্যাসিনো গড়ে তুলেছে। বর্তমানে দেশের একটা কৃষি পণ্য পেঁয়াজের বাজার আজ অস্থির। দেশের আনাচে কানাচে সব জায়গায় ১১০-১২০ টাকা- কেজি পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু কেন এমন হলো তা দেশের মানুষ জানতে চায়? আমাদের বাণিজ্য মন্ত্রী কি করেন? উনি কি ঘুমিয়ে আছেন নাকি? পেঁয়াজের এ সংকটময় অবস্থা আজ অনেকদিন ধরে চলছে। দেশে বিশেষ কোন পণ্যের বিশেষ কারণে সংকট হতে পারে, এটা দেশের সকল শ্রেণিপেশার মানুষ জানে। কিন্তু পেঁয়াজের বাজারের অবস্থা এ রকম হওয়ার জন্য দায়ি কে? তাও দেশের মানুষ জানতে চায়। মাননীয় বাণিজ্য মন্ত্রী আপনি আপনার মন্ত্রণালয় ঠিকভাবে পরিচালনা করেন। দেখেন কি কি সমস্যার কারণে, কাদের কারণে পেঁয়াজের বাজার আজ এমন অবস্থা হলো। খুঁজে বের করেন। তাদের কে দেশের প্রচলিত আইনে বিচার করুন।কোন ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর কারণ একটা দু-টার্মের সফল সরকারের বদনাম হতে পারে না। আর সেটা করতে যদি আপনার সমস্যা হয় তাহলে দয়া করে বাংলার  সফল প্রধানমন্ত্রীর নিকট আপনার দায়িত্ব হস্তান্তর করে চলে আসুন। আর দেশের নিরীহ মানুষ কে মাইরেন না। দেশের মানুষ এবার একটু স্বস্তি চায়। আপনার দায়িত্ববোধ টা দেশের  মানুষ  দেখছে।
লেখক ঃ সাংবাদিক ও কলামিস্ট
০১৮১৮-৯৩৬৯০৯