বাজারে পেঁয়াজ নৈরাজ্য

বাজারে পেঁয়াজ নৈরাজ্য

পেঁয়াজের ঝাঁজ লাগামহীন। অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে পেঁয়াজের দাম। এখন বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকায়। সরকারি বিক্রয় সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) তথ্য মিলিয়ে দেখা যায়, এক বছরে পণ্যটির দাম বেড়েছে ২০০ শতাংশ। আর অক্টোবরে বেড়েছে ৬১ শতাংশ। গত চার মাস ধরে পেঁয়াজের অব্যাহত মূল্য বৃদ্ধির মাধ্যমে ভোক্তার পকেট থেকে প্রায় ৩ হাজার ১৭৯ কোটি টাকা লুটে নিয়েছে অপ্রকাশ্য পেঁয়াজ সিন্ডিকেট। এ সময়ের মধ্যে সিন্ডিকেটের সদস্যরা ২৪ দফায় দাম বাড়িয়ে ভোক্তার পকেট খালি করেছে। ভোক্তা অধিকার সংগঠন কনসাস কনজুমার্স সোসাইটির (সিসিএস) এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত চার মাসে সাধারণ বাজার এবং সরকারি বিপণন সংস্থা টিসিবির বাজার মূল্যের তথ্যের ভিত্তিতে সংস্থাটি এ প্রতিবেদন তৈরি করে।

সংস্থার প্রতিবেদন উল্লেখ করে গণমাধ্যমের খবরে বলা হয় বাজারে পেঁয়াজের কোনো সংকট নেই। আসলে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দফায় দফায় দাম বাড়ানো হয়েছে পেঁয়াজের। আমরা মনে করি, পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টরা দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে পারেননি। পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে ঢের সময় সংশ্লিষ্টদের হাতে ছিল। তারা এ ব্যাপারে জনগণের কষ্টটুকু অনুধাবন করতে পারছে কি-না আমাদের জানা নেই। তবে ক্রেতা সাধারণের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া আমাদের জানা হয়ে যায়। যা আমাদের নিজেদের কাছেও গ্রহণীয় নয়। পেঁয়াজের বাজার কথিত সিন্ডিকেটের কবলে পড়েছে কি-না তা দেখার দায়িত্ব সংশ্লিষ্টদের। মনে রাখতে হবে, কোনো সরকারের যদি কথায় ও কাজে মিল না থাকে তাহলে জনগণ আস্থা হারায়। যারা বাজারকে জিম্মি করেছে, সেই সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে সরকারকে দৃষ্টান্তমূলক আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।