বাংলাদেশকে ভয় পেয়েই এমন দল গড়েছে পাকিস্তান : রমিজ রাজা

বাংলাদেশকে ভয় পেয়েই এমন দল গড়েছে পাকিস্তান : রমিজ রাজা

টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের সময়টা একদমই ভালো কাটছে না। যদিও এখন পর্যন্ত র‌্যাংকিংয়ের এক নম্বর অবস্থানটি ধরে রেখেছে দলটি, তবে সেটা শুধু অতীতের দুর্দান্ত পারফম্যান্সের কারণেই।

সর্বশেষ ৯ টি-টোয়েন্টির মধ্যে ৮টিই হেরেছে পাকিস্তান। এর মধ্যে শেষ দুই সিরিজে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার কাছে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ এবং অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরেছে তারা।
এমন পরিসংখ্যান মাথায় নিয়েই বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে ব্যাপক রদবদল করেছে পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজ খেলা ১৬ জনের দল থেকে বাদ পড়েছেন ৭ জনই।

তবে অভিজ্ঞ দুই ক্রিকেটার শোয়েব মালিক আর মোহাম্মদ হাফিজকে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে নিয়েছে পাকিস্তান। পুরো বিষয়টিকেই ‘স্বার্থপর উদ্দেশ্য’ মনে করছেন দলটির সাবেক ক্রিকেটার ও জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার রমিজ রাজা।

এক ইউটিউব ভিডিওতে পাকিস্তানের নির্বাচকদের রীতিমত ধুয়ে দিয়েছেন রমিজ। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ সিরিজের জন্য পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি দল দেখে আমার ভীষণ রাগ হয়েছে। লম্বা সময়ের লক্ষ্যকে মাথায় রেখে দল নির্বাচন হয়নি। নির্বাচকরা পরিষ্কার বুঝিয়ে দিয়েছেন, তারা আর হারের বোঝা বইতে রাজি নন। এজন্যই শোয়েব মালিক আর মোহাম্মদ হাফিজকে দলে নেয়া হয়েছে, যারা কিনা নিজেদের সেরা সময় ফেলে এসেছেন। যদি আপনি হারের ভয় করেন আর দীর্ঘ সময়ের পরিকল্পনা বাদ দিয়ে স্বার্থপরের মতো চিন্তা করেন, তবে পাকিস্তানে ক্রিকেট কিভাবে এগোবে?’
 
ঘরের মাঠে খেলা। এমন একটি সিরিজে তরুণদের সুযোগ দেওয়া বেশি দরকার ছিল বলে মনে করছেন ৫৭ বছর বয়সী পাকিস্তানের সাবেক এই ক্রিকেটার। তার মতে, বাংলাদেশের কাছে হারের ভয়েই এমনটা করেননি নির্বাচকরা।


রমিজ রাজার ভাষায়, ‘নির্বাচকরা এই দুজনকে (হাফিজ-মালিক) দলে নিয়ে যে বিচক্ষণতা দেখিয়েছেন, সেটা হলো তারা অভিজ্ঞতা দিয়ে আমাদের ম্যাচ জেতাতে পারবেন। যদি এমনই হয়, তবে কেন তাদের অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দলে না নিয়ে কঠিন ওই সফরে তরুণদের সামনে ঠেলে দেওয়া হয়েছিল?’

নির্বাচকদের উদ্দেশ্য করে রমিজ আরও বলেন, ‘ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি সিরিজে অবশ্যই তরুণদের সুযোগ দেওয়া উচিত। আপনারা তো বাংলাদেশের বিপক্ষে হারের ভয় করছেন, এজন্যই নিরাপদ অবস্থানে থাকতে চেয়েছেন। আর এই দুই খেলোয়াড় আমাদের বাঁচিয়ে দেবেন, যারা কিনা পাকিস্তান ক্রিকেটে সেরাটা ইতিমধ্যেই দিয়ে ফেলেছেন!’

মালিক-হাফিজকে ছোট করার জন্য এমন কথা বলছেন না সেটাও জানালেন সাবেক এই ক্রিকেটার। তার কথা, ‘আমার মালিক আর হাফিজের সঙ্গে ব্যক্তিগত কোনো দ্বন্দ্ব নেই। দীর্ঘদিন তারা পাকিস্তানের ক্রিকেটকে সেবা দিয়েছেন। কিন্তু এই বয়সে এসে তারা তো আর খুব বেশি কিছু করতে পারবেন না।’