‘বর্জ্য শোধনাগার ছাড়া শিল্পনগরী অনুমোদন পাবে না’

‘বর্জ্য শোধনাগার ছাড়া শিল্পনগরী অনুমোদন পাবে না’

প্রতিটি শিল্পনগরীতে বর্জ্য শোধনাগার (ইটিপি) স্থাপন করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, ইটিপি ছাড়া শিল্পনগরী স্থাপনের কোনো প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হবে না।

মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় এমনটি জানিয়ে দেন তিনি। সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার কথা সাংবাদিকদের জানান।

সভা সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, একনেকে ১০২ কোটি ৮৩ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘গোপালগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী সম্প্রসারণ (তৃতীয় সংশোধিত)’ প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। কিন্তু প্রকল্পের আওতায় কোনো ইটিপি ছিল না। সেজন্য দ্রুতই ওই প্রকল্প এলাকায় ইটিপি স্থাপনের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি শিল্পনগরী যেখানেই করা হোক, সেখানেই বর্জ্য ব্যবস্থাপনা আধুনিক করার তাগিদ দেন তিনি।

এছাড়া অনুমোদনের পর থেকেই যেন প্রকল্পের মেয়াদ ধরা হয়, সে বিষয়টিও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রকল্প বাস্তবায়নে জলাভূমি ভরাট না করার নির্দেশনা দিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পের মান ঠিক রেখে কাজের গতি বাড়াতে হবে। আরও দ্রুত কাজ করতে হবে। মানও বাড়াতে হবে।

ভূমি অধিগ্রহণে সবসময় তিন গুণ দাম দিতে হবে জানিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, অনেকে পিতা-মাতার স্মৃতিবিজড়িত জমি দিতে চায় না।

এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, আমরা এক টাকার জমি তিন টাকা দিয়ে অধিগ্রহণ করবো। তাতে সবাই জমি দিতে উৎসাহিত হবে। ভালোবেসে জমি অধিগ্রহণ করতে চাই।
 
পরিরকল্পনামন্ত্রী বলেন, কাজে গতি বাড়লে প্রবৃদ্ধিও বাড়ানো সম্ভব। জনগণের অর্থ খরচে আমরা আরও সতর্ক হবো। তবে প্রয়োজন অনুযায়ী খরচের বিপক্ষে নই আমি। কাজ করতে গিয়ে সময় অপচয়ও করা যাবে না।