বরিশাল মেডিকেলে ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

বরিশাল মেডিকেলে ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ কমে এলেও মৃত্যুর মিছিল থামছে না।

শনিবার সকালে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন এক রোগী।

মৃত আব্দুল খালেক (৬৫) ভোলা সদর উপজেলার চরগাজি গ্রামের নেজাবুল হকের ছেলে।

হাসপাতালের পরিচালক ডা. বাকির হোসেন সাংবাদিকদের জানান, ডেঙ্গু আক্রান্ত খালেককে শুক্রবার দুপুরে ভর্তি করা হয়েছিল। ভর্তির সময় তিনি অজ্ঞান  ছিলেন এবং তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল।

শনিবার সকাল ৮টায় খালেক মারা যান।

“চিকিৎসকরা প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দিয়েও তাকে বাঁচাতে পারেনি,” বলেন ডা. বাকির।

গত এক সপ্তাহে ডেঙ্গুতে যে আটজন রোগী মারা গেছেন, তার সবই খুলনা-বরিশাল অঞ্চলের।

এবছর ঢাকাসহ সারাদেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যায়।

এইডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আড়াইশর বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে এবছর।

২৪২ জনের মৃত্যুর তথ্য আসার কথা জানিয়ে  রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) বলেছে, এর মধ্যে ১৫১ জনের তথ্য পর্যালোচনা শেষ করেছেন তারা, তার মধ্যে ৯৩ জনের ডেঙ্গুতে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালের শুরু থেকে গত বৃহস্পতিবার সারা দেশে মোট ৯১ হাজার ৫৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

অথচ ২০০০ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত এই সংখ্যা ছিল সর্বমোট ৫০ হাজার ১৪৮। অর্থাৎ ১৮ বছরে যত আক্রান্ত হয়েছিল, এই বছরে তার প্রায় দ্বিগুণ হয় রোগী।

গত অগাস্টে ৫২ হাজার ৬৩৬ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। অর্থাৎ, এ বছর কেবল অগাস্ট মাসেই রোগীর সংখ্যা ছিল গত ১৮ বছরের সম্মিলিত সংখ্যার চেয়ে বেশি।

সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে রোগীর সংখ্যা কমে আসে।