‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক মামলার পলাতক আসামি নিহত

‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক মামলার পলাতক আসামি নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফে র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চিহ্নিত এক মাদক কারবারী নিহত হয়েছেন। বুধবার ভোরে টেকনাফ বাহারছড়া ইউনিয়নের উত্তর শিলখালী এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে ২টি এলজি, তিন রাউন্ড গুলি ও ১০ হাজার পিস ইয়াবাও উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন র‍্যাব-১৫ টেকনাফের ইনচার্জ মীর্জা শাহেদ মাহতাব।


নিহত ছলিম উল্লাহ (৩৬) টেকনাফ পৌরসভার নতুন পল্লাংপাড়া এলাকার নজির আহাম্মদের ছেলে। ছলিম এলাকার চিহ্নিত ইয়াবা কারবারী। কিছুদিন আগেও তার বাড়ি থেকে ২ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছিল র‍্যাব।

র‍্যাব-১৫ টেকনাফ ক্যাম্প ইনচার্জ মীর্জা মাহতাব জানান, মাদক ব্যবসায়ীদের একটি চক্র ইয়াবা পাচারের জন্য উত্তর শীলখালী এলাকায় অবস্থান নিয়েছে, এমন খবরে অভিযান চালায় টেকনাফে দায়িত্বরত র‍্যাব-১৫ সদস্যরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছালে মাদক কারবারীরা র‍্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পরে র‍্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়।

এক পর্যায়ে মাদক পাচারকারীরা পালিয়ে যায়। এরপর ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ছলিম উল্লাহকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মির্জা শাহেদ মাহতাব আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে ২টি এলজি অস্ত্র, তিন রাউন্ড গুলি ও ১০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‍্যাব।

নিহত ছলিম উল্লাহ এলাকার চিহ্নিত ইয়াবা কারবারী। কিছুদিন আগেও তার বাড়ি থেকে ২ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছিল র‍্যাব। ওই সময় তার স্ত্রীকে আটক করা হয়েছিল। সেই ঘটনার মামলায় নিহত ছলিম পলাতক আসামি। তার মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য টেকনাফ থানা পুলিশকে হস্তান্তর করেছে র‍্যাব।

টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মরদেহটি কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পৃথক মামলা করা হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন ওসি।