বগুড়ায় হঠাৎ বাস চলাচল বন্ধে দুর্ভোগে যাত্রীরা

বগুড়ায় হঠাৎ বাস চলাচল বন্ধে দুর্ভোগে যাত্রীরা

সম্প্রতি দেশে নতুন সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ চালু হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা। নতুন এ আইন পরিবর্তনের দাবিতে হঠাৎ যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ হওয়ায় দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে যাত্রীদের।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) সকাল থেকে কোনো ঘোষণা ছাড়াই বগুড়া থেকে জয়পুরহাট, রংপুর, নওগাঁ, গাইবান্ধা, দিনাজপুর, নাটোর, রাজশাহী, ময়মনসিংহসহ উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গের সড়কপথে সবধরনের বাস চলাচল বন্ধ রাখেন বাস মালিক ও চালকরা।

এদিন দুপুরে বগুড়া কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, যাত্রীদের দুর্ভোগ। পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই এভাবে বাস চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীরা বাস না পেয়ে বিপাকে পড়েছেন। বিকল্প উপায়ে ঝুঁকি নিয়ে ও বাড়তি ভাড়ার মাধ্যমে গন্তব্যে পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন অনেকেই।

নওগাঁ অভিমুখে যাত্রা করা ইউসুফ আলী  বলেন, তিনি নওগাঁতে একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। ছুটিতে বাড়ি এসেছিলেন। রোববার (১৭ নভেম্বর) সকালে তার অফিস ধরতে হবে। কিন্তু বাস চলাচল বন্ধ থাকায় সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ট্রাকে যাত্রা করার।

বাসচালক আকবর জানান, নতুন সড়ক আইন তারা মানেন না। কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে যে শাস্তির বা জরিমানার আইন পাস হয়েছে, সেটি চালকদের পক্ষে বহন করা সম্ভব না।

তিনি আরও জানান, কোনো চালক ইচ্ছাকৃতভাবে দুর্ঘটনা ঘটায় না। আর তাই, এ আইন বাতিলের দাবিতে মূলত পরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

বগুড়া মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি কামরুল মোর্শেদ জানান, তারা গাড়ি বন্ধের কোনো ঘোষণা দেননি। প্রশাসনের অভিযানের ভয়ে মালিক ও চালকরা নিজে থেকেই ফিটনেসবিহীন গাড়ি বন্ধ রেখেছেন।

বগুড়া ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (টিআই-৪) সালেকুজ্জামান সালেক জানান, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী নতুন সড়ক আইন এক সপ্তাহ শেষে বাস্তবায়নের যে কথা ছিল, সেটির ভয়ে সকাল থেকে মালিক-শ্রমিকদের অনেকেই বাস চলাচল বন্ধ রেখেছিলেন। তবে বিকেল থেকে এ আতঙ্ক কেটে বাস চলাচল স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।