বগুড়ায় মহাসড়কের পাশে কলেজছাত্রের লাশ

বগুড়ায় মহাসড়কের পাশে কলেজছাত্রের লাশ

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় মহাসড়কের পাশ থেকে এক কলেজছা্ত্েরর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কের পাশে নয়মাইল এলাকায় সাব্বির রহমান শাওনের (১৮) লাশ পাওয়া যায়। শাওন বগুড়া সদরের ঠনঠনিয়া সুফি পাড়ার হাবিবুর রহমানের ছেলে। এবার বগুড়া সরকারি শাহ সুলতান কলেজ থেকে চলতি বছরের এইচএসসি পরীায় উত্তীর্ণ হয়েছে। শাওনের স্বজনদের দাবি, তাকে হত্যা করে কেউ রাস্তার পাশে লাশ ফেলে গেছে।
 
শাওনের বাবা হাবিবুর রহমান বলেন, রোববার বিকালে জুতা কেনার কথা বলে বাইরে যান শাওন। বাসায় না ফেরায় রাত ১০টার দিকে শাওনের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে বন্ধ প্ওায়া যায়। এরপর তার প্রতিবেশী বন্ধু মিঠুর ফোনে কল দেন তিনি। “তখন শাওনকে পাওয়া যায়। শাওন আমাকে জানায় ১০ মিনিটের মধ্যে সে বাসায় আসছে। কিন্তু রাত ১টায় আবার মিঠুকে ফোন দিলে সে জানায় শাওনকে শহরের আলতাফ আলী মার্কেটে রেখে এসেছে।

হাবিবুর রহমান বলেন, এরপর তার খোঁজে বিভিন্ন স্থানে যোগাযোগ করেও পাওয়া যায়নি। সোমবার সকালে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন শাওনের ছোটো ভাই সাকিবুর রহমান। শাওনের চাচা আল আমিন সাংবাদিকদের বলেন, “রাত ১২টার দিকে শাওনকে বন্ধু মিঠু ও মুন্নার সঙ্গে মোটরসাইকেলে দেখিছি।

শাওনের বাবা হাবিবুর রহমান ও মা সেলিনা আক্তার বলেন, শাওনকে হত্যা করে লাশ রাস্তার পাশে ফেলে রেখেছে কেউ। শাজাহানপুর থানার এস আই শান্ত বলেন, “সিএনজি অটোরিকশা চালকের কাছে খবর পেয়ে সোমবার সকাল ৬টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ জ্য়িাউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। কোনো মামলা হয়নি।”বগুড়া সদর থানার ওসি এস এম বদিউজ্জামান বলেন, শাওন হত্যা রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে হত্যা রহস্য জানা যাবে।