বখাটেপনা রুখতেই হবে

বখাটেপনা রুখতেই হবে

সারা দেশে বখাটেদের উৎপাত আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। স্কুল পড়–য়া ছোট ছোট মেয়েরাও বখাটেদের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না। বখাটেদের উৎপাতে দেশের গ্রামাঞ্চলে প্রতিদিনই কিশোরী-তরুণীদের অপমানিত নির্যাতিত হতে হচ্ছে। বখাটের উৎপাতে মেয়েরা আত্মহত্যা করতে বাধ্য হচ্ছে এমনও ঘটনা ঘটছে। অনেক ক্ষেত্রে অভিভাবকরাও প্রতিবাদ করতে গিয়ে বখাটেদের দ্বারা লাঞ্ছিত হচ্ছেন। আমাদের প্রতিদিনকার গণমাধ্যমে এসব চিত্র প্রকটভাবে ফুটে উঠছে। বখাটেদের বিরুদ্ধে মাঝে মাঝে মামলা হলেও প্রতিকারের ঘটনা কদাচিতই ঘটে। বাংলাদেশে নারীর সম্ভ্রমের নিরাপত্তা নেই বলে বেশির ভাগ বাবা মা তাদের কন্যা সন্তানকে সাবালিকা হওয়ার আগেই বিয়ে দিতে বাধ্য হন। দেশের কোনো বিবেকবান মানুষ এ অবস্থা মেনে নিতে পারে না। আবার নারী নির্যাতনের সব ঘটনাও গণমাধ্যমে পৌঁছে না। পারিবারিক ও সামাজিক নিরাপত্তার কারণে অনেক ঘটনা চাপা থাকলেও ধর্ষিতার জীবন তছনছ হয়ে যায়। এই অপরাধী ও অপরাধ আমাদের মূল্যবোধহীন সমাজ ব্যবস্থা থেকেই সৃষ্টি হয়েছে। আমরা জানি এসব বখাটেরা নিছক বখাটে নয়, এদের ঘটনা রাজনৈতিক কানেকশন রয়েছে। ফলে সামাজিক প্রভাবের কারণে কখনো কখনো এসব বখাটেদের বিরুদ্ধে তৎক্ষণাত কোনো পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়না, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে। এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার পথ খুঁজে বের করা এখন একান্ত জরুরি হয়ে পড়েছে। বিচারহীন সংস্কৃতির কারণে ভুক্তভোগীরা আইনের আশ্রয় নিয়েও রক্ষা পাচ্ছেনা। দেশে নারী শিক্ষার জন্য অন্তরায় হয়ে দাঁড়াচ্ছে এসব ক্ষমতার আশ্রয়ে-প্রশয়ে থাকা বখাটেরা। নিজেদের সভ্য দুনিয়ায় অংশ হিসেবে পরিচিত করতে চাইলে এ ব্যাপারে আপসহীন হতেই হবে।