ফিলিপাইনে আছড়ে পড়েছে টাইফুন কাম্মুরি, ঘরছাড়া ২ লাখ

ফিলিপাইনে আছড়ে পড়েছে টাইফুন কাম্মুরি, ঘরছাড়া ২ লাখ

প্রবল শক্তি নিয়ে ফিলিপাইনে আছড়ে পড়েছে টাইফুন কাম্মুরি। এরইমধ্যে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে অন্তত দুই লাখ মানুষকে। যারা স্বেচ্ছায় যেতে রাজি হচ্ছে না, তাদের বলপূর্বক নিকটবর্তী আশ্রয়কেন্দ্রে নিতে নির্দেশ দিয়েছেন লুজন প্রদেশের গভর্নর আল ফ্রান্সিস বিচারা।


আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, সোমবার (২ ডিসেম্বর) রাতে লুজন দ্বীপে আঘাত হানে টাইফুন কাম্মুরি (স্থানীয় বলছেন ‘টিসয়’)। এর প্রভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে স্থানীয় বিমানবন্দরের সব কার্যক্রম। সেখানে ব্যাপক জলোচ্ছ্বাস ও ভূমিধসের আশঙ্কা করছে কর্তৃপক্ষ। 

ফিলিপাইনের দুর্যোগ সংস্থা জানিয়েছে, লুজন ও এর আশপাশের এলাকা থেকে অন্তত দুই লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ক্যাটাগরি-৪ মাত্রার টাইফুনটি এর গতিপথে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ চালাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। 
 
মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে কাম্মুরি দেশটির রাজধানী ম্যানিলা অতিক্রম করবে বলে জানানো হয়েছে। এর কারণে নিনয় অ্যাকুইনো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর স্থানীয় সময় সকাল ১১টা থেকে ১২ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে। কয়েক ডজন ফ্লাইট এরইমধ্যে বাতিল করা হয়েছে। বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে প্রদেশের সব স্কুল-কলেজ।

ফিলিপাইনে চলমান সাউথইস্ট এশিয়ান গেমসেও ব্যাঘাত ঘটাতে পারে ‘কাম্মুরি’। তবে এখন পর্যন্ত ১১ দিনব্যাপী এ আয়োজনে সময় বাড়ানোর কোনো পরিকল্পনা নেই কর্তৃপক্ষের।

ফিলিপাইনে প্রতিবছর অন্তত ২০টি টাইফুন আঘাত হানলেও ডিসেম্বরের আগেই সাধারণত ঝড়ের মৌসুম শেষ হয়ে যায়। ফলে বছরের শেষ মাসের শুরুতেই কাম্মুরির আঘাত দেশটিতে অনেকটা ‘বিরল’ ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে।