ফিরোজায় উঠলেন খালেদা জিয়া

ফিরোজায় উঠলেন খালেদা জিয়া

কারামুক্তির পর গুলশানে নিজ বাসভবন ফিরোজায় পৌঁছেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বুধবার (২৫ মার্চ) বিকেল ৩টা ৫মিনিটে মুক্তি পাওয়ার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের কেবিন থেকে ৪টা ২০ মিনিটে গাড়িতে ওঠানো হয় খালেদা জিয়াকে।

এ সময় তার নিজের যে নিশান পেট্রোল গাড়িটি তাকে আনার জন্য গিয়েছিল সেই গাড়িটি অনেক উঁচু হওয়া তিনি উঠতে পারেননি। শারীরিকভাবে অসুস্থতার কারণে তিনি অপেক্ষাকৃত নিচু তার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দারের গাড়িতে বসেন।

গাড়িটি ঠিক ৪টা ২৫মিনিটে বিএসএমএমইউ হাসপাতালের গেট থেকে বের হয়ে আসে। এ সময় তার গাড়ির সামনে ও পেছনে হাজার হাজার দলীয় নেতাকর্মী স্লোগান দিতে থাকে। সেজন্য গাড়িতে হাসপাতালের গেট থেকে মেইন সড়কে আসতে সময় লাগে। এরপর গাড়ি চলতে শুরু করলেও হাজার হাজার নেতাকর্মীর ভিড়ের কারণে কম গতিতে গাড়িয়ে চালিয়ে গুলশানের দিকে রওয়ানা করেন।


করোনা ভাইরাসের কারণে রাস্তায় গাড়ি কম থাকলেও দলীয় নেতাকর্মীদের কারণে প্রায় এক ঘণ্টা পর ৫টা ১৫ মিনিটে গুলশান ২ নম্বরের ৭৯ নম্বর সড়কের এক নম্বর বাড়ির সামনে পৌঁছে। সেখানেও আগে থেকে উপস্থিত ছিলেন কয়েক হাজার দলীয় নেতাকর্মী। কিন্তু খালেদা জিয়া কারও সঙ্গে কথা না বলে সরাসরি তার গাড়িটে বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে।

গোলাপি রংয়ের শাড়ি পড়া খালেদা জিয়ার চোখে চিরাচিরত সানগ্লাসটিও ছিল। তিনি হুইল চেয়ার থেকে গাড়িতে বসেই বাসায় আসেন। 

খালেদা জিয়াকে হাসপাতাল থেকে বাসায় আনার জন্য বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, তার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার, ভাইয়ের স্ত্রী কানিজ ফাতিমা, ভাইয়ের ছেলে অভিক ইস্কান্দার, তারেক রহমানের স্ত্রীর বড় বোন শাহিনা জামান খান, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, চেয়ারপারসনের পিএস আব্দুস সাত্তার, প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান, শামসুদ্দিন দিদার প্রমুখ।