ফিরে গেলেন স্বজনদের খোঁজে পাবনায় আসা ডেনিশ দম্পতি

ফিরে গেলেন স্বজনদের খোঁজে পাবনায় আসা ডেনিশ দম্পতি

পাবনা প্রতিনিধি : ৪১ বছর পর হারিয়ে যাওয়া বাবা-মার সন্ধানে স্ত্রীকে নিয়ে পাবনায় আসা বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত ডেনিশ নাগরিক মিন্টো কারস্টেন সোনিক গত বৃহস্পতিবার সকালে পাবনা ছেড়েছেন। ঢাকাতে কয়েকদিন অবস্থানের পরে ডেনমার্কের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ফিরে গেলেন স্বজনদের খোঁজে পাবনায় আসা ছাড়বেন বলে জানান মিন্টোর বন্ধু স্বাধীন বিশ্বাস। তবে আবারো স্বজনদের খোঁজে পাবনায় আসার ইচ্ছা ব্যক্ত করেছেন।ছয় বছর বয়সে হারিয়ে যাওয়া মিন্টো জানেন না তার বাবা-মা এমনকি গ্রামের নাম। ছোটবেলার একটি ছবিকে সম্বল করে নিজের পরিবার ফিরে পেতে গত কয়েকদিন ধরে পাবনার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বেড়িয়েছেন। হারিয়ে যাওয়ার সময়কার তার ছবি দেখিয়ে জানতে চেয়েছেন কেউ এই ছেলেটিকে চেনেন কিনা? তবে বিভিন্ন গণমাধ্যমে মিন্টোর এই খবর প্রকাশের পর পাবনাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মিন্টোকে স্বজন দাবি করে বহু পরিবার। তবে এদের মধ্যে মিন্টো ১৭টি পরিবারের সাথে কথা বলেন এবং তাদের তালিকা করেন।

১৯৭৭ সালে ছয় বছর বয়সে পাবনার নগরবাড়ী ঘাটে হারিয়ে যান মিন্টো। সেখান থেকে চৌধুরী কামরুল হোসেন নামের এক ব্যক্তি মিন্টোকে পৌঁছে দেন ঢাকার এক আশ্রমে। ১৯৭৮ সালে ওলে ও বেনফি নামের ডেনিশ দম্পতি দত্তক নিয়ে ডেনমার্ক নিয়ে যান মিন্টোকে। সেখানেই তার শৈশব কৈশোর কাটে। বিত্তবৈভবের মাঝে লেখাপড়া শিখে বড় হন। পেশায় একজন চিত্র শিল্পী তিনি। ডেনমার্কের নাগরিক এনিটি হোলমিহেভ নামের এক চিকিৎসককে বিয়ে করে সংসার জীবন শুরু করেন। তাদের দাম্পত্য জীবনে এক ছেলে ও মেয়ে রয়েছে।