ফরিদপুরে ছিনতাইকারীর হামলায় আহত সেবিকার মৃত্যু

ফরিদপুরে ছিনতাইকারীর হামলায় আহত সেবিকার মৃত্যু

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক সেবিকা ছিনতাইকারীর হামলায় আহত হওয়ার পাঁচ দিন পর মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকায় ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সে তার মৃত্যু হয় বলে জানান ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবুল কালাম আজাদ।

গত শনিবার ফরিদপুর শহরের ঝিলটুলী এলাকায় ছিনতাইকারীর হামলায় আহত হন ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স আহত অনিমা বিশ্বাস (৫০)। আবুল কালাম আজাদ জানান, অনিমার মাথায় ছুরিকাঘাত হয়েছিল। এছাড়া মাটিতে পড়ে গিয়েও তার মাথায় আঘাত লাগে। ঘটনার পরপরই তাকে ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে নিয়ে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়।

“বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।” শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার সময় অনিমা বিশ্বাস বাসা থেকে হাসপাতালে যাচ্ছিলেন রিকশায়।

ঝিলটুলীর ভূমি অফিসের সামনে এলে ৩/৪টি মোটরসাইকেল তার গতিরোধ করে ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় বাধা দিলে ছিনতাইকারীরা তাকে ছুটিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। ওই সময় রিকশা থেকে পড়ে যান অনিমা।

অনিমা বিশ্বাস ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক কান গলা বিভিাগের চিকিৎসক নিপেন্দ্র নাথ বিশ্বাসের স্ত্রী। একই দিন ঝিলটুলীর সোনালী ব্যাংক মোড়েও আরেকটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। ওই সময় বর্ণা দাস (৪৫) নামের এক এনজিও কর্মীর কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা ও তার ব্যবহৃত একটি এনড্রয়েড মোবাইল ফোনসহ ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়।