প্রশ্নফাঁসের হোতাকে ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার

প্রশ্নফাঁসের হোতাকে ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার

ফেসবুক বা অন্য কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে অথবা অন্য কোনো উপায়ে প্রশ্নফাঁসে জড়িত কাউকে ধরিয়ে দিলে পাঁচ লাখ টাকা পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। চলমান এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার বিষয়ে রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে জাতীয় মনিটরিং এবং আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত কমিটির জরুরি সভা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী এ ঘোষণা দেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে একই প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা গ্রহণের মধ্যে প্রায় প্রতিটি পরীক্ষার প্রশ্ন ফেসবুক, ইমোসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফাঁস হচ্ছে বলে অভিযোগ মিলছে। প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পাওয়া গেলে পরীক্ষা বাতিলের কথা শিক্ষামন্ত্রী ও সচিব বলে এলেও তা হয়নি। এই প্রেক্ষিতে রোববার জরুরি সভাটি ডাকা হয়।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে বেলা  সোয়া ৩টার দিকে শুরু হওয়া সভায় কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর ছাড়াও মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তারা অংশ নেন।এতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, আইসিটি বিভাগ, পুলিশ, র‌্যাব এবং গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিদেরও ডাকা হয়। এছাড়াও ডাকা হয় বিটিআরসি চেয়ারম্যান ও এনটিএমসি (ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টারের) মহাপরিচালককে।

সভার শুরুতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন ফেসবুকে আসল বা নকল যাই হোক- প্রশ্নপত্র নিয়ে কোনো পোস্ট দেওয়ায় জড়িতকে ধরিয়ে দিলে পাঁচ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা দেওয়ার প্রস্তাব করেন।

সচিবের বক্তব্যের পর সাংবাদিকদের বের হয়ে যাওয়ার অনুরোধ করে নিজেদের মধ্যে আলাচনা শুরু করেন সংশ্লিষ্টরা।