'প্রথম' হারে ফাইনালের অপেক্ষা বাড়ল বাংলাদেশের

'প্রথম' হারে ফাইনালের অপেক্ষা বাড়ল বাংলাদেশের

টানা দুই ম্যাচ জিতে ফাইনালের পথে এক পা দিয়েই রেখেছিল। তৃতীয় ম্যাচটি জিতলেই ফাইনাল। এমন সহজ সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়েও নেপালের কাছে রীতিমত বিধ্বস্ত হলো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবল দল। তবে হেরে গেলেও সুযোগ শেষ হয়ে যায়নি। এজন্য অপেক্ষায় থাকতে হবে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ পর্যন্ত।


মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) বেলা সাড়ে তিনটায় পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার কল্যাণী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ ফুটবলে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে নেপালের কাছে ৪-১ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। এই নিয়ে সাফের বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতায় পাঁচবারের দেখায় নেপালের কাছে চারবারই হারলো বাংলাদেশ।

গ্রুপ পর্বে ভুটান ও শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়ে বেশ সুবিধাজনক অবস্থানে থেকেই মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু নেপালের বিপক্ষে সেই ছন্দ খুঁজেই পাওয়া গেল না। বরং শুরু থেকেই অগোছালো ফুটবল খেলার খেসারত দিয়ে হয়েছে।

খেলার ৪৭তম মিনিটে নিজেদের অর্ধ থেকে সতীর্থদের বাড়ানো লম্বা পাস ধরে একক প্রচেষ্টায় লক্ষ্যভেদ করেন নেপালের ফরোয়ার্ড যাদব। এরপর দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরুর ৭ মিনিট পরে ব্যবধান বাড়ানো গোল করেন নেপালি ফরোয়ার্ড সুগাম জিমি। গোল খেয়ে বংলাদেশের আক্রমণের হার বাড়লেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া বাংলদেশ ৭৯তম মিনিটে একটা গোল শোধ করলেও ৮৪তম মিনিটে ব্যবধান আরও বড় করেন নেপালের লামসাল। আর বাংলাদেশকে চূড়ান্ত হতাশায় ডুবিয়ে ৮৮তম মিনিটে নিজের দ্বিতীয় ও দলের চতুর্থ গোল তুলে দেন যাদব।

৩ ম্যাচে ২ জয় আর ১ হার অর্থাৎ ৬ পয়েন্ট নিয়ে রাউন্ড রবিন লিগ পর্বে এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় স্থানে আছে বাংলাদেশ। সমান ম্যাচে ২ পয়েন্ট নিয়ে গোলও ব্যবধানে তিনে আছে নেপাল। এদিকে পাঁচ দলের এই আসরে নিজেদের তিন ম্যাচেই জয় তথা ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ভারত। অর্থাৎ, ভারতের ফাইনাল প্রায় নিশ্চিত। 

আগামী বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) বেলা সাড়ে ৩টায় গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে এই ভারতের বিপক্ষেই মাঠে নামবে বাংলাদেশ। আর ওইদিন দুপুর সাড়ে ১২টায় এরইমধ্যে বিদায় নিশ্চিত হয়ে যাওয়া ভুটানের মুখোমুখি হবে নেপাল। ওইদিনই আসলে ফয়সালা হয়ে যাবে ফাইনালে কে কার মোকাবিলা করবে।