প্রচারে আসছে কুয়াকাটায় ধারণ করা ‘ইত্যাদি’

প্রচারে আসছে কুয়াকাটায় ধারণ করা ‘ইত্যাদি’

ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা, সংস্কৃতি, পর্যটন ও দর্শনীয় স্থানগুলোতে গিয়ে ধারণ করা হয় জনপ্রিয় বিটিভির ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’। সেই ধারাবাহিকতায় ‘ইত্যাদি’র এবারের পর্ব ধারণ করা হয়েছে আগুনমুখা, পায়রা ও লোহাদিয়া নদী-বিধৌত পটুয়াখালী জেলার সাগরকন্যা কুয়াকাটায়। ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে কেবল এই সৈকত থেকে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের দৃশ্য উপভোগ্য হয়ে ওঠে।

এবারের ইত্যাদির সেটেও আছে নান্দনিকতার ছোঁয়া। পেছনে সমুদ্র রেখে সেটের দু’পাশে অর্ধশতাধিক মাছ ধরার নৌকা রেখে বানানো হয়েছে দৃষ্টিনন্দন সেট। কুয়াকাটার ঐতিহ্যের সঙ্গে সাদৃশ্য রেখে নির্মাণ করা হয়েছে আলোকিত মঞ্চ। তার সামনে হাজার হাজার দর্শকের উপস্থিতি দেখা যাবে এবারের পর্ব।


হানিফ সংকেত জানান, এবারের পর্বে থাকছে পটুয়াখালীর ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় স্থানগুলোর ওপর তথ্যভিত্তিক প্রতিবেদন। পটুয়াখালীর সদর উপজেলার নন্দীপাড়ার আবদুর রাজ্জাক বিশ্বাসের সাপের খামারের ওপর রয়েছে একটি তথ্যসমৃদ্ধ প্রতিবেদন। সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া ও তাড়াশ উপজেলার সীমান্তবর্তী একটি গ্রাম এবং যশোর জেলার অভয়নগর উপজেলার একটি গ্রামে কৃত্রিম ও প্রাকৃতিক উপায়ে মধু আহরণের ওপর রয়েছে একটি ব্যতিক্রমী প্রতিবেদন।

কুয়াকাটার নবীনপুর গ্রামের মন্নান মাঝির নিঃস্বার্থ মানবিক কর্মকাণ্ডের ওপর রয়েছে একটি মানবিক প্রতিবেদন। বিদেশি প্রতিবেদনে রয়েছে প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি দক্ষিণ আফ্রিকার রাজধানী কেপটাউনে অবস্থিত পৃথিবীর প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য টেবিল মাউন্টেনের ওপর একটি বিশেষ প্রতিবেদন।

এবারের ‘ইত্যাদি’তে মূল গান রয়েছে একটি। গেয়েছেন রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। ‘আমি কথা বলি দেশের মাটির জন্যে, আমার কণ্ঠে গান আসে এই দেশের রূপ লাবণ্যে’, মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানের কথায় গানটির সংগীত পরিচালনা করেছেন ফরিদ আহমেদ। এছাড়াও পটুয়াখালীকে নিয়ে লেখা একটি গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেছেন স্থানীয় নৃত্যশিল্পীবৃন্দ। গানটির কথা লিখেছেন মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান, সুর করেছেন হানিফ সংকেত, সংগীতায়োজন করেছেন মেহেদী। কণ্ঠ দিয়েছেন প্রতীক হাসান ও আনিকা। আর কোরিওগ্রাফি করেছেন মনিরুল ইসলাম মুকুল।

এবারের ‘ইত্যাদি’র বিভিন্ন পর্বে উল্লেখযোগ্য শিল্পীরা হলেন- মাসুদ আলী খান, সোলায়মান খোকা, এস এম মহসীন, জিয়াউল হাসান কিসলু, কে এস ফিরোজ, কাজী আসাদ, আব্দুল কাদের, আফজাল শরীফ, শবনম পারভীন, শুভাশীষ ভৌমিক, আব্দুল আজিজ, শেলী আহসান, কামাল বায়েজীদ, জিল্লুর রহমান, আমিন আজাদ, তারিক স্বপন, ইমিলা, আনোয়ার শাহী, নজরুল ইসলাম, জাহিদ চৌধুরী, নিপু, সুর্বণা মজুমদার, মনজুর আলম, নিসা, বিলু বড়ুয়া, শামীম, সজলসহ অনেকে।

হানিফ সংকেত বলেন, ‘কুয়াকাটা সৈকতের আশপাশে তেমন কোনো জনবসতি না থাকলেও শুটিং শুরুর আগেই অনুষ্ঠানস্থল কানায় কানায় ভরে যায়। আমন্ত্রিত দর্শক ছাড়াও হাজার হাজার মানুষ আশপাশের রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে মন্ত্রমুগ্ধের মতো উপভোগ করেছেন ‘ইত্যাদি’র নান্দনিক সব পর্ব। এবার সারা দেশের দর্শকরা উপভোগ করবেন অনুষ্ঠানটি।’

ইত্যাদির এই পর্ব একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচার হবে ২৯ মার্চ, শুক্রবার রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর। ‘ইত্যাদি’ রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ হয়েছে ফাগুন অডিও ভিশনের ব্যানারে। স্পন্সর করেছে যথারীতি কেয়া কসমেটিকস লিমিটেড।