প্যারিসে বিক্ষোভকারীদের ওপর টিয়ারগ্যাস, গ্রেফতার ২৪

প্যারিসে বিক্ষোভকারীদের ওপর টিয়ারগ্যাস, গ্রেফতার ২৪

করতোয়া ডেস্ক : ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের নিরাপত্তা বেষ্টনী ভাঙার চেষ্টা করলে পুলিশ টিয়ারগস্যাস নিক্ষেপ করে। গ্রেফতার করা হয় ২৪ বিক্ষোভকারীকে। পুলিশের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স। জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি ছাড়াও ফ্রান্সে সামগ্রিকভাবে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়ে যাওয়ার প্রতিবাদ জানায় বিক্ষোভকারীরা। প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ’র পদত্যাগের দাবিতে স্লোগান তুলছে তারা। দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে দেশজুড়ে সড়ক অবরোধ করে জ্বালানির দাম বাড়ানোর প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে বিক্ষোভকারীরা। দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ’র জন্য তার দেড় বছরের শাসনকালে এ বিক্ষোভকেই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা হচ্ছে। ফ্রান্সে গত এক বছরে ডিজেলের দাম ২৩ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

 দেশটির বেশিরভাগ গাড়িতে ডিজেল ব্যবহার করা হয়ে থাকে। গত দশকের প্রথম দিককার পর এখনই দেশটিতে তেলের দাম সবচেয়ে বেশি। বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমলেও প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সরকার সেখানে ‘পরিষ্কার গাড়ি ও জ্বালানি’ প্রচারাভিযানের অংশ হিসেবে তেলের ওপর হাইড্রোকার্বন ট্যাক্স বাড়িয়েছে। দেশটিতে বর্তমানে প্রতি লিটার ডিজেলের ওপর ৭.৬ সেন্ট ও প্রতি লিটার পেট্রোলের ওপর ৩.৯ সেন্ট হারে ট্যাক্স আরোপ করা হয়েছে। এছাড়া আগামী জানুয়ারি মাস থেকে আরও ৬.৫ সেন্ট ও ২.৯ সেন্ট হারে কর বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তেলের দামের এমন ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে ফরাসিরা আন্দোলনে নেমেছেন। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ গরিব মানুষকে বর্জন করছেন। এক ভাষণে ম্যাক্রোঁও স্বীকার করেছেন যে, তিনি সত্যিকার অর্থে নেতাদের সঙ্গে ফরাসি জনগণকে পুনর্মিলিত করতে পারেননি। তবে বিরোধীদের বিরুদ্ধে এই আন্দোলন ছিনতাইয়ের অভিযোগ তুলে তিনি বলেছেন, তার সংস্কার কর্মসূচি ঠেকাতেই এমনটা করা হচ্ছে।