পোশাক খাতে শৃঙ্খলা ফিরুক

পোশাক খাতে শৃঙ্খলা ফিরুক

তৈরী পোশাক খাতের শ্রমিকদের আন্দোলনের মুখে ন্যূনতম মজুরি কাঠামা সমন্বয় করেছে সরকার। ফলে ছয় গ্রেডে মজুরি কমবেশি বেড়েছে। প্রথম থেকে ষষ্ঠ গ্রেড পর্যন্ত বেসিক বা মূল মজুরিও বাড়ানো হয়েছে বিভিন্ন হারে। সপ্তম গ্রেডে মজুরি বোর্ড ঘোষিত ন্যূনতম মজুরি অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। মজুরি পর্যালোচনা গঠিত কমিটির তৃতীয় বৈঠকে গত রোববার এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সচিবালয়ে শ্রম মন্ত্রণালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সংশোধিত মজুরি কাঠামো গত ডিসেম্বর থেকেই কার্যকর করা হবে। আগামী মাসের মজুরির সঙ্গে বকেয়া হিসেবে বাড়তি অর্থ পাবেন শ্রমিকরা। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার রাতে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও সচিব এবং পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজেএমইএ নেতাদের গণভবনে ডেকে আলোচনা করে মজুরি সমন্বয়ের নির্দেশ দেন।

সেই নির্দেশনা অনুসারে গত রোববার সন্ধ্যায় ত্রিপক্ষীয় বেঠক থেকে নতুন সংশোধিত মজুরি কাঠামো ঘোষণা করা হয়। শুভ বুদ্ধির উদয়ের এ ঘটনা অবশ্যই অভিনন্দনযোগ্য। এদিকে সাভারে ঢাকা সিটি কপোরেশনের ময়লার গাড়ির ‘ধাক্কায়’ এক পোশাককর্মির মৃত্যুর গুজবে সড়ক অবরোধ ও ভাংচুর করেছে শ্রমিকরা। গতকাল সোমবার সকাল ৮টার দিকে আমিন বাজারে জুরান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ওই এলাকায় একটি কারখানার শ্রমিকরা ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় এবং সিটি কর্পোরেশনের কয়েকটি ময়লা পরিবহণ গাড়ি ভাংচুর করে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে দুঘন্টা পর মহাসড়কে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়। গার্মেন্ট শিল্পের শান্তি শৃঙ্খলার স্বার্থেই সব পক্ষকে সুবুদ্ধি ও সুবিবেচনার গুণাবলি অর্জন করতে হবে।