পূর্বশত্রুতার জের, হাতিরঝিলে ছুরিকাঘাতে কিশোর নিহত

পূর্বশত্রুতার জের, হাতিরঝিলে ছুরিকাঘাতে কিশোর নিহত

রাজধানীর হাতিরঝিলের মধুবাগ ব্রিজ এলাকায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে শিপন নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে।  রোববার রাত নয়টার দিকে হাতিরঝিলের মধুবাগ ব্রিজ এলাকায় মোটরসাইকেল নিয়ে রাউন্ড দেয়ার সময় শিপন ও মানিককে ছুরিকাঘাত করে প্রতিপক্ষ গ্রুপের সদস্যরা। 
গুরুতর আহতাবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে আনা হলে রাত এগারোটার দিকে মারা যায় শিপন। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, পূর্ব শত্রুতার জেরে তাদের সন্তনকে হত্যা করা হয়েছে।
রোববার বন্ধুদের নিয়ে হাতিরঝিলের মধুবাগ ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় আড্ডা দিচ্ছেলেন শিপন। এরপর মোটরসাইকেলে যাওয়ার সময় ছুরিকাঘাতের শিকার হন নিহত শিপন আর তার বন্ধু মানিক।
নিহত শিপন নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার সাইদুল ইসলামের ছেলে। রমনা মধুবাগ এলাকায় সে থাকত এবং হাজীপাড়ার একটি ওয়ার্কশপের দোকানে মেকানিকের কাজ করতো।
নিহত শিপনের পরিবারের অভিযোগ, দেড় বছর আগে পরীক্ষার নকল ধরা নিয়ে শিপনের সাথে দ্বন্দ্বে লিপ্ত হয় আজাদ সুজন গ্রুপ।  তারপর মারামারিতেও জড়িয়ে পরে তারা। এর জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড হয়েছে বলে ধারণা নিহতের পরিবারের।
শিপনের বন্ধুরা জানায়, হাতিরঝিল এলাকায় শিপন এবং মানিককে পেয়ে আজাদ-সুজন ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। 
ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া শিপনের মৃত্যুর তথ্যটি নিশ্চিত করে জানান, চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ১২টার দিকে শিপন মারা যায়। আহত মানিক এখনো চিকিৎসাধীন। তবে তার অবস্থা গুরুতর নয়। ঘটনার সময় দু’জনই মোটরসাইকেলে ছিল। সুজন, আজাদ ও আফিফ নামে তিন জন এসে তাদের এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। শিপনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত আছে।
হাতিরঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ জানান, দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় শিপন নামের এক কিশোর মারা গেছে। আরেকজন আহত হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। দুই গ্রুপের মধ্যে আগে থেকেই শত্রুতা ছিল।