পীরগঞ্জে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি ৩ অপহরণকারী গ্রেফতার

পীরগঞ্জে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি ৩ অপহরণকারী গ্রেফতার

পীরগঞ্জ (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে অটো রাইস মিলের এক কর্মচারীকে চাউলের দোকান থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মারপিট করে মোবাইল, এটিএম কার্ড ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার পর এক লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করার অভিযোগ উঠেছে ৩ যুবকের বিরুদ্ধে। পুলিশের সহায়তায় ওই কর্মচারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে তার স্বজনরা। রোববার বিকেলে পৌর শহরের রঘুনাথপুর আলী পুকুর ঈদগাহ মাঠ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। রাতেই ওই ৩ যুবকসহ অজ্ঞাত নামা আরো ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

পীরগঞ্জের অরুনিমা আটো রাইস মিলের চাইলের দোকানের ম্যানেজার নুরুজ্জামান জানান, শহরের শহিদ অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা সড়কে অরুনিমা আটো রাইস মিলের চাউলের দোকানে অবস্থান করছিলেন তিনি। কথা আছে বলে বোরবার বেলা আড়াইটার দিকে তাকে দোকান থেকে মোটরসাইকেলে করে আলীপুকুর ঈদগা মাঠ এলাকায় তুলে নিয়ে যায় রাশেদ, রাজু ও মিলন নামে ৩ যুবক। পথে তার দুটি মোবাইল ফোন কেড়ে নেয় ওরা। এরপর সেখানে একটি বাড়িতে আটকে রেখে এক মহিলাকে মোবাইল ফোনে এসএমএস দেয়ার অভিযোগ তুলে তাকে মারপিট করে তার কাছ থেকে ১৬ হাজার টাকা ও ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের একটি এটিএম কার্ড কেড়ে নেয়। কিন্তু আদৌও তিনি কোন মহিলাকে এসএমএস দেননি।

 পরে একটি আম বাগানে নিয়ে গিয়ে আবারো বেদম পেটায় এবং এক লাখ টাকা দাবি করে তার মোবাইল দিয়েই চাউলের দোকানের ক্যাশিয়ারকে আসতে বলে। টাকা নেয়ার জন্য ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের একটি মোবাইল নম্বরও দেয়া হয়। পরে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানানো হলে থানার এএসআই হানিফ তাদের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলেন। তার কাছেও টাকা দাবি করে অপহরণকারীরা। পুলিশ পরিচয় দিলে তারা ফোন কেটে দেয়। পুলিশে খবর দেয়া অপরাধে আরো পেটানো হয় নুরুজ্জানকে।

বিকেলে পুলিশ ও প্রতিবেশীদের সহায়তায় নরুজ্জামানকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তিনি এখন স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।এ বিষয়ে থানার এএসআই হানিফ জানান, মোবাইলে টাকা দাবি করার কথোপকোথন তার কাছে রয়েছে। ৩ যুবকসহ আরো অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগও পাওয়া গেছে। পীরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আকরাম আলী বলেন, এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।