পাসের হার বৃদ্ধি শিক্ষার্থী-অভিভাবক-শিক্ষকদের কৃতিত্ব

পাসের হার বৃদ্ধি শিক্ষার্থী-অভিভাবক-শিক্ষকদের কৃতিত্ব

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার পাসের হার ৪ দশমিক ৪৩ শতাংশ বৃদ্ধি পাওয়া শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের কৃতিত্ব বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। সোমবার (৬ মে) রাজধানীর সেগুন বাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ২০১৯ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশের সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় দশ বোর্ডে গড় পাসের হার ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ। গত বছর গড় পাসের হার ছিল ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ। অর্থাৎ এবার পাসের হার বেড়েছে ৪ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর এটাই আপনার (ডা. দীপু মনি) প্রথম ফলাফল। পাসের হার বৃদ্ধি আপনার উপহার কি না -জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘পাসের হার বেড়েছে এটি আমাদের উপহার -এটা মনে করার কারণ নেই। পরীক্ষার্থীরাই পরীক্ষা দিয়ে ভালো ফল করেছে। আমরা চাই সব শিক্ষার্থী পাস করবে, কিন্তু কোনো না কোনো কারণে অনেক শিক্ষার্থী পাস করে না।’

তিনি বলেন, ‘পাসের হার বৃদ্ধি পেয়েছে এতে আমাদের মন্ত্রীদের কোনো ব্যক্তিগত কৃতিত্বের ব্যাপার নেই। এটি পুরোপুরি শিক্ষার্থী-অভিভাবক এবং শিক্ষকদের সম্মিলিত কৃতিত্ব।’

কোনো কোনো বোর্ডে এবার পাসের হার চোখে লাগার মতো কমেছে ও বেড়েছে -এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে মন্ত্রী বলেন, ‘এটি মোটেই অস্বাভাবিক কিছু নয়। কোথাও কোথাও বেড়েছে, কোথাও কমেছে। যেখানে বেশি বেড়েছে সেখানে কোনো ধরনের শিথিলতা ছিল না।’

ঢাকা বোর্ডে পাসের হার এক দশমিক ৮৬ শতাংশ কমার কারণ নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘ঢাকা বোর্ডে গণিতে পাসের হার গত বছরের তুলনায় ২ দশমিক ৫৬ শতাংশ কমেছে। মানবিকে গত বছরের তুলনায় কমেছে ৩ দশমিক ৩৪ শতাংশ। যেহেতু মোট পরীক্ষার্থীর ৪০ শতাংশ মানবিকের পরীক্ষার্থী, তার প্রভাব পুরো পাসের হারের উপরে কিছুটা পড়েছে।’

সিলেটে পাসের হার সবচেয়ে কম হওয়ার কারণ নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘সেখানেও গণিতে পাসের হার কম।’ কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার বেশি হওয়ার কারণ নিয়ে তিনি বলেন, ‘কোথাও যখন কেউ এগিয়ে যাচ্ছে সেটা আমাদের শেখার আছে। ধারাবাহিকভাবে একটি বোর্ড ভালো করলে নিশ্চয়ই ভালো কিছু করছে। এই পরিসংখ্যান থেকে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করব।’

আইসিটি শিক্ষায় পাসের হার কম নিয়ে দীপু মনি বলেন, ‘আইসিটির শিক্ষক এখনও অপ্রতুল। আমরা শিক্ষক বাড়ানো ও প্রশিক্ষণ দেয়ার চেষ্টা করছি। কারিকুলাম রিভিউ করার ক্ষেত্রে আইসিটি শিক্ষাকেও আরও বেশি দক্ষ করে তুলতে পারি -সে বিষয়ে বিশেষভাবে মনোযোগ দিচ্ছি।’

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর উপস্থিত ছিলেন।