পানছড়িতে ইউপিডিএফ নেতাকে গুলি করে হত্যা

পানছড়িতে ইউপিডিএফ নেতাকে গুলি করে হত্যা

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে বিনাষন চাকমা ওরফে তারাবন (৪৩) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) প্রসীত গ্রুপের সদস্য বলে জানা গেছে। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পানছড়ির ইউনিয়নের নাপিতাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বিনাষন রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার কেরেতছড়ি নামক গ্রামের বাসিন্দা হলেও দীর্ঘদিন ধরে তিনি পানছড়ি সদরের কুড়াদিয়া ছড়ায় বসবাস করে আসছিলেন। জানা যায়, সকালে সাংগঠনিক কাজে ঘর থেকে বের হয় বিনাষন। এসময় আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে পালিয়ে যায়।

 এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার জন্য পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি এমএন লারমা গ্রুপকে দায়ী করেছে ইউপিডিএফের জেলা সংগঠক মাইকেল চাকমা। তিনি বলেন, আগে থেকে জেএসএসের সন্ত্রাসীরা ওইখানে অবস্থান নিয়েছিল। বিনাষন ঘর থেকে বের হলে সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে পালিয়ে যায়। বিনাষন ইউপিডিএফ সমর্থিত সংগঠন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের পানছড়ি উপজেলা সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বলেও জানান তিনি।তবে নিজেদের সম্পৃক্ততা অস্বীকার করেছেন এমএন লারমা নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সহ-তথ্য ও প্রচার সম্পাদক প্রশান্ত ত্রিপুরা। পানছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আলম  বলেন, ঘটনাস্থল বেশ দুর্গম। ফোর্স নিয়ে রওনা হয়েছি। মরদেহ উদ্ধারে বেশ সময় লাগতে পারে।