পাকিস্তানে এখনও ৩০-৪০ হাজার সন্ত্রাসী রয়েছে : ইমরান খান

পাকিস্তানে এখনও ৩০-৪০ হাজার সন্ত্রাসী রয়েছে : ইমরান খান

পাকিস্তানে এখনও ত্রিশ থেকে চল্লিশ হাজার সন্ত্রাসী রয়েছে যারা কাশ্মীর এবং আফগানিস্তানের জন্য প্রশিক্ষণ ও লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে। মঙ্গলবার পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এমন তথ্য দিয়েছেন বলে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

দেশটির গণমাধ্যমগুলো বলছে, পাক প্রধানমন্ত্রীর এই স্বীকারোক্তিতে সন্ত্রাসবাদ নিয়ে ভারতের দাবি আরও জোরদার হলো। ভারত বারবারই দাবি করে আসছে যে, তাদের দেশে যেসব জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটছে তার নেপথ্যে রয়েছে পাকিস্তানের মদদপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনগুলো।


যুক্তরাষ্ট্র সফররত পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় দাবি করেন, তার দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ সরকারে আসার আগে যে সরকার ক্ষমতায় ছিল তারা পাকিস্তানে সক্রিয় জঙ্গি সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়ার মতো রাজনৈতিক দৃঢ়তা দেখায়নি।

এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী ইমরান খান বলেন, ‘আমরা ক্ষমতায় আসার আগ পর্যন্ত যে সরকারই ক্ষমতায় থাকুক না কেন, তারা রাজনৈতিক সদিচ্ছা দেখায়নি। কেননা, জঙ্গি সংগঠনগুলো প্রসঙ্গে বলতেই হয় যে, আমাদের দেশে ত্রিশ থেকে চল্লিশ হাজার সশস্ত্র জঙ্গি রয়েছে যারা প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং আফগানিস্তান ও কাশ্মীরের কিছু অংশ নিয়ে লড়াইয়ে প্রস্তুত।’

যুক্তরাষ্ট্রের ইনস্টিটিউট অফ পিসে দেয়া বক্তৃতায় ইমরান খান বলেন, ‘২০১৪ সালে তালেবানরা ১৫০ জন স্কুলছাত্রকে আর্মি পাবলিক স্কুলে ঢুকে হত্যা করেছিল। সেই সময় সমস্ত রাজনৈতিক দল জাতীয় কর্ম পরিকল্পনা বিষয়ে স্বাক্ষর করেছিল। আমরা সবাই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে, আমরা কোনও জঙ্গি দলকে দেশের ভেতরে সক্রিয় থাকতে দেব না।’

পাক প্রধানমন্ত্রীর দাবি, তার সরকারই প্রথম এই জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোকে নিরস্ত্র করার চেষ্টা করছে। ইমরান বলেন, ‘আমরা তাদের প্রতিষ্ঠান, সেমিনারগুলোর উপরেও দখল নিয়েছি। আমাদের প্রশাসন তাদের উপর নজর রাখছে।’