পাকিস্তানই আমার ঠিকানা: আদনান সামির ছেলে আজান

পাকিস্তানই আমার ঠিকানা: আদনান সামির ছেলে আজান

পাকিস্তানি সঙ্গীতশিল্পী ও গীতিকার আদনান সামি পাকিস্তান ছেড়ে এখন ভারতের নাগরিক। এবার গানের জন্য নয়, বরং তার ছেলের জন্য সংবাদ শিরোনাম হয়েছেন তিনি। কারণ তার ছেলে আজান সামি পাকিস্তানকেই তার বাড়ি মনে করেন।
 


সম্প্রতি বিবিসির সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে আজান বলেছেন, ‘আমি এ বিষয়ে আগে কখনোই মুখ খুলিনি, কারণ তিনি আমার বাবা। আমি তাকে ভালোবাসি ও শ্রদ্ধা করি। তিনি কোথায় বাস করতে চান এবং কোন দেশকে তার নিজের বাড়ি মনে করেন এ বিষয়ে তিনিই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমি তার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাই। কিন্তু আমি কোন দেশকে বাড়ি মনে করবো সেটা আমার পছন্দের বিষয়। আর আমি পাকিস্তানেই কাজ করতে পছন্দ করি।’

আজান নিজেও একজন গীতিকার। তিনি জানিয়েছেন, পাকিস্তানকেই তার বাড়ি বলে পরিচয় দিতে তিনি গর্ববোধ করেন। ‘ভারতে আমার দারুণ কিছু বন্ধু আছে। আমার জীবনের অনেকটা সময় সেখানেই কাঠিয়েছি, বিশেষ করে উঠতি বয়সে। কিন্তু পাকিস্তানই আমার বাড়ি। আমি এখানেই বেড়ে উঠেছি এবং পাকিস্তানের শিল্পজগতকেই আমার পরিবার বলে অনুভব করি। আমাকে নিয়ে তারা অনেক গর্বিত, আশাবাদী এবং উচ্চাভিলাষী যে আমি এই ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক অবদান রাখব,’ যোগ করেন তিনি।

তার এবং তার বাবা আদনান সামির রাজনৈতিক মতাদর্শ সম্পর্কে বলতে গিয়ে আজান বলেন, ‘আমি ও আমার বাবা যা বলাবলি করি তা আমাদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকা উচিত। আমাদের খুব পরীক্ষিত একটি সুসম্পর্ক আছে। আমি আমার মায়ের সঙ্গে বড় হয়েছি। আর বাবার সঙ্গে আমার সম্পর্ক তো বন্ধুর মতোই। তার কাছেই আমি বিভিন্ন উপদেশের জন্য ছুটে যাই। এটা খুব মজাদার সম্পর্ক, কারণ এমনও হয় যে, মাসের পর মাস আমাদের মধ্যে কথা হয় না, কিন্তু যখন কথা হয় তখন পরস্পরকে খুব আপন করেই অনুভব করি। আর সন্তান হিসেবে আমার বাবা-মা কী করেন সে বিষয়ে মন্তব্য করা আমার উচিত নয়। আমি পরামর্শ দিতে পারি, কিন্তু তারা কী করবেন সেটা নিশ্চয় বলতে পারি না।’

পাকিস্তানের সাবেক নাগরিক আদনান সামি ১৯৭১ সালে লন্ডনে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা পশতুন এবং মা জম্মুর নাগরিক। ১৯৮৪ সাল থেকেই তিনি সঙ্গীতজগতে কাজ করছেন। ১৯৯৩ সালে পাকিস্তানি অভিনেত্রী জেবা বখতিয়ারকে বিয়ে করেন। তাদের সন্তান আজান সামি খান। মাত তিন বছর পরই তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায়। ২০১৫ সালে আদনান ভারতের নাগরিকত্ব লাভ করেন।