পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম কমলেও খুচরায় প্রভাব নেই

পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম কমলেও খুচরায় প্রভাব নেই

একদিনের ব্যবধানে দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার হিলি স্থলবন্দরে পাইকারি বাজারে কেজি প্রতি পেঁয়াজের দাম কমেছে পাঁচ টাকা। তবে এর প্রভাব পড়েনি খোলা বাজারে।

জানা যায়, সাম্প্রতিক বন্যায় ভারতের পেঁয়াজ উৎপাদন অঞ্চলগুলোতে পেঁয়াজের মাঠ ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ কারণে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় দেশে পেঁয়াজ আমদানি কমে যাচ্ছে। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে হিলি স্থলবন্দর আট দিন বন্ধ ছিল। এছাড়াও ঈদের পর যানবাহন, শ্রমিক সংকট এবং ভারতে বন্যার কারণে পাইকারি ও খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছিল।

ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) হিসাব মতে এক সপ্তাহ আগে হিলির খুচরা বাজারে ৩০-৩৫ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন কারণে হিলির খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০-৫৫ টাকা দরে।

বন্দরের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী মোর্শেদুর রহমান জানান, ভারতের মহারাষ্ট্র ও উত্তর প্রদেশসহ বিভিন্ন প্রদেশে বন্যা শুরু হয়েছে। বিশেষ করে মহারাষ্ট্র ও উত্তর প্রদেশে বেশি পেঁয়াজ উৎপাদন হয়। কিন্তু চলতি মৌসুমে বন্যার কারণে ফসলের মাঠ ডুবে যাওয়ায় পেঁয়াজের আবাদ নষ্ট হয়ে গেছে। এজন্য সেখানে পেঁয়াজের সংকট চলছে। দামও বেড়ে গেছে।

তিনি আরও জানান, একদিনের ব্যবধানে রোববার (২৫ আগস্ট) বর্তমানে হিলিতে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩৮-৪০ টাকা কেজি দরে। যা গত কয়েকদিন ধরে বিক্রি হচ্ছিল ৪২-৪৫ টাকা কেজি দরে। হিলির পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম কমলেও খুচরা বাজারে এর প্রভাব পড়েনি।