পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারে স্বাভাবিক হচ্ছে উত্তরবঙ্গ

পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারে স্বাভাবিক হচ্ছে উত্তরবঙ্গ

নতুন সড়ক আইনে আংশিক পরিবর্তনের আশ্বাসে অবশেষে দেশব্যাপী পরিবহন ধর্মঘট তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতারা। এর পরিপ্রেক্ষিতে উত্তরবঙ্গ-বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে যানবাহন চলাচল। প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়ার পরও নওগাঁসহ দেশের কয়েকটি জেলায় এখনও ধর্মঘট অব্যাহত রেখেছেন পরিবহন শ্রমিকেরা।

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) সকাল থেকে জেলার অভ্যন্তরীণ রুট, উত্তরবঙ্গমুখী ও উত্তরবঙ্গ থেকে ঢাকামুখী বাস, ট্রাক, ট্যাংকলরি, কার্ভাডভ্যান ও পিকআপ চলাচল শুরু হয়েছে।

এর আগে বুধবার (২০ নভেম্বর) সকাল থেকে নতুন সড়ক আইন পরিবর্তনের দাবিতে যাত্রী ও পণ্যবাহী সব পরিবহন বন্ধ রেখে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই ধর্মঘটে নামে শ্রমিকরা। এতে বগুড়া সড়ক-মহাসড়কে আটকে পড়ে অসংখ্য পণ্যবাহী যানবাহন। উত্তরাঞ্চল থেকে সবজিসহ বিভিন্ন পণ্য সরবরাহ বন্ধ হয়ে পড়ে। এর প্রভাব পড়ে পাইকারি বাজারেও।

এদিকে শ্রমিকদের আকস্মিক এ আন্দোলনে দিশেহারা হয়ে পড়ে সাধারন মানুষ। পরবর্তীতে পরিবহন মালিক-শ্রমিক পক্ষের কেন্দ্রীয় নেতাদের ঘোষণায় আজ থেকে যানবাহন চলাচল শুরু হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নতুন সড়ক আইনে উল্লেখিত জরিমানা ও শাস্তিব্যবস্থা মেনে নেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে পরিবহন মালিক-শ্রমিক পক্ষ। যানবাহনের কাগজপত্র চেকিংয়ের নামে সড়ক-মহাসড়কে পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে সারাদেশে যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখা হয়।

বগুড়া মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সামছুদ্দিন শেখ হেলাল  জানান, সব প্রকার পরিবহন ধর্মঘট কেন্দ্রীয়ভাবে প্রত্যাহার হওয়ায় ও নতুন আইন সংশোধনের আশ্বাসে বগুড়ায় চালক-শ্রমিকরা যানবাহন চালাতে শুরু করেছে। কিছু চালক ভয়ে তাদের গাড়ি বন্ধ রেখেছিল। কিন্তু মহাসড়ক এখন আগের অবস্থায় ফিরতে শুরু করেছে।

বগুড়া সদর থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) আর কে বি রেজা জানান,  বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বগুড়া মহাসড়কে যানচলাচল স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে। দুপুরের মধ্যে মহাসড়ক আগের অবস্থায় ফিরে যাবে বলে আশা করছেন তিনি।