পদ্মায় ফেরির ধাক্কায় লঞ্চ চরে, নিরাপদে উদ্ধার ২শ যাত্রী

পদ্মায় ফেরির ধাক্কায় লঞ্চ চরে, নিরাপদে উদ্ধার ২শ যাত্রী

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় পদ্মা নদীতে একটি ডাম্প ফেরির ধাক্কায় একটি লঞ্চ চরে আটকে পড়ার পর নৌ পুলিশ ২০০ যাত্রীকে উদ্ধার করেছে।

রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটের লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে এই ঘটনা ঘটে।

মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম বলেন, লঞ্চটি চরে আটকা পড়ার পর ওই লঞ্চের এক যাত্রী জরুরি নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করেন। এরপর মাওয়া নৌ-পুলিশকে জানালে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে যাত্রীদের উদ্ধার করা হয়।

লঞ্চটির সামনের উপরের কিছু অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শিমুলিয়া ঘাট থেকে আরেকটি লঞ্চ গিয়ে যাত্রীদের উদ্ধার করে। লঞ্চটি বর্তমানে শিমুলিয়া ঘাটে রয়েছে বলে জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিএ-এর শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শক মো. সোলেমান বলেন, মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে ২০০ জন যাত্রী নিয়ে ‘আশিক এন্টারপ্রাইজ’ নামের লঞ্চটি মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাট আসছিল।

পথিমধ্যে লৌহজং চ্যানেল সরু হয়ে যাওয়ায় কাঁঠালবাড়ি ঘাটগামী ফেরির সঙ্গে ধাক্কা লেগে লঞ্চটি পদ্মার চরে ছিটকে পড়ে। তবে এতে লঞ্চটির ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি।

“খবর পেয়ে আরেকটি লঞ্চের মাধ্যমে যাত্রীদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।”

বিআইডব্লিউটিসি'র শিমুলিয়া ঘাটের উপ-মহাব্যবস্থাপক নাসির মোহাম্মদ চৌধুরী বলেন, বড় ডাম্প ফেরি লঞ্চের উপর এসে ধাক্কা লেগে চরের দিকে চলে যায়। লঞ্চের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।