নৃত্যশিল্পীকে অ্যাডাল্ট ভিডিও দেখিয়ে বিপদে গণেশ

নৃত্যশিল্পীকে অ্যাডাল্ট ভিডিও দেখিয়ে বিপদে গণেশ

আবারও বলিউডের জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী ও নৃত্য পরিচালক গণেশ আচার্যের বিরুদ্ধে হ্যাশট্যাগ মিটুর অভিযোগ। বেশ আগেই অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত তার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনেছিলেন। গণেশকে বয়কটের ডাকও দিয়েছিলেন তনুশ্রী।
এবার দিব্যা কোটিয়ান নামে এক ডান্স কোরিওগ্রাফার কর্মক্ষেত্রে হেনস্তা এবং ‘অ্যাডাল্ট ভিডিও’ দেখানোর অভিযোগে এনেছেন। গেল সোমবার মুম্বাইয়ের আম্বোলি থানায় গণেশের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন তিনি।
নৃত্যশিল্পী বলেন, গণেশ যখন ‘ভারতীয় ফিল্ম এবং টেলিভিশন কোরিওগ্রাফার অ্যাসোসিয়েশন’র সাধারণ সম্পাদক তখন থেকেই নানাভাবে হেনস্তা করে আসছে। প্রায়শই অফিসে ডেকে জোর করে অশালীন ভিডিও দেখতে বাধ্য করতেন গনেশ।
বিষয়টি নিয়ে আপত্তি জানালে গণেশের সঙ্গে দিব্যার মনোমালিন্য হয়। কিছু দিন আগে এক লাখ টাকার মেম্বারশিপ চার্জ দেওয়ার পরেও ওই অ্যাসোসিয়েশন থেকে দিব্যার সদস্য পদ বাতিল করেন কোরিওগ্রাফার গণেশ। ভারতীয় একাধিক গণমাধ্যমকে জানান দিব্যা।
পুলিশের কাছে তার অভিযোগ, গণেশের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হওয়ায় অন্যান্য কোরিওগ্রাফারও আমাকে কাজ দিতে অস্বীকার করতেন। সবার একই কথা ছিল, গণেশের সঙ্গে সব ঠিক করে নাও।
ভারতীয় পুলিশ জানায়, ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের এক অনুষ্ঠানে গণেশের সঙ্গে দিব্যার দেখা হলে দিব্যা গণেশের কাছে সদস্যপদ বাতিল করার কারণ জানতে চান। এতে গণেশ দুই কোরিওগ্রাফারকে নির্দেশ দেন দিব্যাকে অনুষ্ঠান থেকে বের করে দেয়ার জন্য। জয়শ্রী কেলকার এবং প্রীতি ল্যাড নামে দুই কোরিওগ্রাফার সেখান থেকে দিব্যাকে মারতে মারতে বের করে দেন। বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ করেন দিব্যা।  
গণেশ বেশ খ্যাতনামা একজন নৃত্যশিল্পী ও নৃত্য পরিচালক। ‘সিম্বা’, ‘পদ্মাবত’, ‘জিরো’, ‘সঞ্জু’সহ বলিউডের অনেক বিগ-বাজেট ছবির নৃত্য পরিচালনা করেছেন গণেশ।