নিউজিল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা ম্যাচে চোখ রাখুন এ দু'জনের ওপর

নিউজিল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা ম্যাচে চোখ রাখুন এ দু'জনের ওপর

ক্রিকেট দলগত খেলা। তবে ব্যক্তিগত নৈপুণ্যও যে অনেক সময় দু'দলের মধ্যে ভাগ্য নির্ধারণ করে দিতে পারে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে তো ইংল্যান্ডের বেন স্টোকস দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তাই করে দেখিয়েছিলেন। এ ছাড়াও গতকাল (শুক্রবার) ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার ওসানে থমাস একাই গুড়িয়ে দেন পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপ। ফলে তার দল জিতে খুব সহজেই।

এরকম একা হাতে ম্যাচ ঘুরিয়ে দিতে দেখা যেতে পারে আজ নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার ম্যাচেও। তবে নিউজিল্যান্ড দলে বেশ কয়েকজন ম্যাচ ঘুরিয়ে দেয়ার মতো ক্রিকেটার থাকলেও শ্রীলঙ্কা তাকিয়ে থাকবে তাদের অভিজ্ঞ দু-একজন ক্রিকেটারের দিকে।
যদিও দুই দলের দুই তারকার দিকে বাড়তি নজর রাখা তো লাগেই! সেই দুজন কারা? চলুন দেখে নেয়া যাক।
ট্রেন্ট বোল্ট : গত বিশ্বকাপের ফর্ম এ বিশ্বকাপেও টেনে এনেছেন নিউজিল্যান্ডের পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। ঘরের মাঠে আয়োজিত বিশ্বকাপে মাত্র ৯ ম্যাচে ২২ উইকেট শিকার করে দলকে ফাইনালে নিয়ে যেতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন বোল্ট। এই বিশ্বকাপেও ইতোমধ্যে ব্যাটসম্যানদের সতর্ক বার্তা দিয়ে রেখেছেন তিনি। কিউইদের হয়ে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে দুই ম্যাচেই ৪টি করে উইকেট পকেটে পুরেছেন এই বাঁহাতি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে তার দল দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচ হারলেও, প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে প্রায় একাই ভারতীয় ব্যাটিং অর্ডারকে গুড়িয়ে দেন বোল্ট। নতুন বলে গতি আর সুইংয়ে আজও যে তিনি শ্রীলঙ্কান শিবিরে কাঁপন ধরাবেন তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

দিমুথ করুনারত্নে : ১৯৯৬ বিশ্বকাপজয়ীদের এবার লাগবে শুধু অনুপ্রেরণা। সেই জোরে এবারের বিশ্বকাপের যদি তারা কোনো চমক সৃষ্টি করতে। আর সেই অনুপ্রেরণা জোগাতে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিতে হবে দলের অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নেকে। যদিও ২০১৫ বিশ্বকাপের পর প্রথম ওয়ানডেতে সুযোগ পাওয়া এই ওপেনারের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছিল। তবে ব্যাট হাতে প্রস্তুতি ম্যাচগুলোতে ভালো করে আপাতত সমালোচকদের মুখে কুলুপ এঁটেছেন তিনি।

একই কাজ করুনারত্নেকে করে দেখাতে বিশ্বকাপের মূলমঞ্চেও। তবেই যদি ভাঙা-চোরা দল নিয়ে বিশ্বকাপে বলার মতো কিছু করতে পারে লঙ্কানরা। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে নামার আগে করুনারত্নে নিজেও নিজের থেকে অনুপ্রেরণা নিতে পারে। কারণ লঙ্কান অধিনায়ক তার প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিটি পেয়েছিলেন এই ব্ল্যাকক্যাপসদের বিপক্ষেই।ৃ