নাটোরে হত্যা মামলায় দু’জনের যাবজ্জীবন

নাটোরে হত্যা মামলায় দু’জনের যাবজ্জীবন

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার কালাম মৃধা নামে এক ভটভটিচালককে হত্যার দায়ে দু’জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ মো. রেজাউল করিম এ আদেশ দেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- নলডাঙ্গা উপজেলার বেলঘড়িয়া শিবপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৬) ও একই গ্রামের মৃত রইস উদ্দিনের ছেলে বাবু (২৭)। এদের মধ্যে বাবু পলাতক। নিহত কালাম মৃধা একই গ্রামের হযরত আলী মৃধার ছেলে।

নাটোর জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম জানান, ২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল দুপুরে শ্যালো ইঞ্জিন চালিত ভটভটি ভাড়া নেওয়ার কথা বলে কামালকে নলডাঙ্গা উপজেলার সীমান্তবর্তী রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বারোপাখিয়া বিলমাড়িয়া বিলে ডেকে নিয়ে যান সাইফুল ও বাবু। তারা রাতে সেখানে কালামকে শ্বাসরোধে হত্যা পর তার মুখমণ্ডল পুড়িয়ে দেন এবং দেহের নিচের অংশ কেটে ও থেতলে দিয়ে ভটভটি নিয়ে পালিয়ে যান। পরদিন সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে স্থানীয়দের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ সাইফুলকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি হত্যার দায় স্বীকার করেন এবং এর সঙ্গে বাবুর জড়িত থাকার কথা জানান। এ ঘটনায় নিহত কালামের বাবা বাদী হয়ে নলডাঙ্গা থানায় ওই দু’জনের নাম উল্লেখ করে চার/পাঁচজনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন। মামলাটি নলডঙ্গা থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু তাহের তদন্ত করে আদালতে চার্জশিট দেন। পরে বাদীর নারাজির ভিত্তিতে মামলাটি পুনরায় তদন্ত করে সাইফুল ও বাবুর বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেয় জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। মামলার শুনানি ও নথিপত্র পর্যালোচনা শেষে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় রোববার এ রায় দেন বিচারক।