নাটোরে মেম্বার ও তার সন্তানদের অস্ত্রের আঘাতে এক নারী আহত

নাটোরে মেম্বার ও তার সন্তানদের অস্ত্রের আঘাতে এক নারী আহত

নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের নলডাঙ্গার হলুদঘরে আফজাল হোসেন নামের এক মেম্বার ও তার সন্তানদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে এক নারী আহত হয়েছে। আয়না (৩৫) নামের ওই নারীকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, নলডাঙ্গা উপজেলার ব্রক্ষপুর ইউনিয়নের শেখ পাড়া গ্রামের মৃত আমজাদ হোসেনের মেয়ে আয়না খাতুন (৩৫) তার বোন মুসলে এর সাথে পারিবারিক জমি জমার বিষয় নিয়ে আলোচনা করছিল। এ সময় প্রতিবেশী ইউপি মেম্বার আফজাল হোসেনের স্ত্রী নাহার বানু তাদের আলোচনার মধ্যে অংশ নিয়ে নানা কথাবার্তা বলা শুরু করে।

এ সময় আয়না ও তার বোন নিজেদের পারিবারিক বিষয় থেকে নাহার বানুকে বিরত থাকার কথা বলে। এনিয়ে তাদের মধ্যে সামান্য কথা কাটাকাটি হয়। এ বিষয়টি নাহার বানু তার স্বামী ও সন্তানদের জানায়। পরে নাহার বানুর পরিবারের পক্ষ থেকে আয়নাকে নানা ধরনের হুমকি ধামকি প্রদান করা হয়। এ ঘটনায় ভীত হয়ে আয়না শুক্রবার বিকালে মামলা করে নলডাঙ্গা থানায় যায়। কিন্তু থানায় মামলা লেখার মুন্সি না থাকায় মামলা না করে বাড়ি ফেরার পথে হলুদঘর এলাকায় মেম্বার আফজাল ও তার তিন ছেলে নয়ন, নাহিদ এবং লিখন আয়নাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আয়নাকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে নলডাঙ্গা থানার (ওসি) তদন্ত উজ্জল হোসেন জানান, গতকাল আয়না নামের এক নারী মামলা করতে থানায় আসে কিন্তু মুন্সি না থাকায় মামলা করা যায়নি। পরে যাওয়ার পথে তিনি হামলার শিকার হয়েছেন শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তবে এ ঘটনায় এখনো কোন মামলা হয়নি মামলা হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ব্যাপারে কথা বলতে ওই মেম্বারের নাম্বারে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।