নাগেশ্বরীতে নিজ ঘর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার

নাগেশ্বরীতে নিজ ঘর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার

নাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম)  প্রতিনিধি : নাগেশ্বরীতে ঘর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাদের শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারনা করছেন তারা। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালে পৌরসভার বানিয়াপাড়া এলাকায়। নিহতের বাড়িতে চলছে স্বজনের আহাজারী। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, বৃহস্পতিবার পৌরসভার বানিয়াপাড়ার মৃত ছকিয়ত উল্লার ছেলে দাদন ব্যাবসায়ী নজরুল ইসলাম মেনা (৫৫) রাতের খাবার খেয়ে তার দ্বিতীয় স্ত্রী রুমী বেগম (৩২) ও দেড় বছরের শিশু রিফাতকে শোবার ঘরে রেখে পাশের রুমে চেয়ার টেবিলে বসে কাজ করছিল। এক সময় তার স্ত্রী সন্তানরা ঘুমিয়ে পড়লে রাতের কোন একসময় দুবৃত্তরা মেনার রুমে ঢুকে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পাশের রুমে ঢুকে তার স্ত্রীকেও হত্যা করে পালিয়ে যায় অজ্ঞাত খুনীরা। শুক্রবার ভোরে শিশুটির কান্না শুনে প্রতিবেশিরা সেখানে গিয়ে তাদের মরদেহ দেখতে পায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। পুলিশ জানায়, নিহত দুইজনের গলার বাম পাশে আঘাত ও জখমের চিহ্ন রয়েছে এবং রুমী বেগমের মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়েছে।

জানা গেছে, হত্যাকারীরা তাদের হত্যা করে ওই দুই রুমে থাকা নজরুল ইসলাম মেনার নগদ টাকা ও অনেক কাগজপত্র নিয়ে গেছে। শুক্রবার দুপুরে নিহতের বড়ভাই ফজর আলী নাগেশ্বরী থানায় অজ্ঞাত আসামী উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। নাগেশ্বরী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রওশন কবির জানান, ধারনা করা হচ্ছে তাদেরকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট এলে জানা যাবে। তবে এখন পর্যন্ত হত্যার কোন কারন খুজে পাওয়া যায়নি।