নদী ভাঙন রোধে তিস্তার পাড়ে ৬’শ মানুষের বিশেষ মোনাজাত

নদী ভাঙন রোধে তিস্তার পাড়ে ৬’শ মানুষের বিশেষ মোনাজাত

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় নদী ভাঙন রোধে বিশেষ মোনাজাত ও নামাজ আদায় করেছে এলাকাবাসী। এলাকাবাসীর উদ্যোগে বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের পুটিমারী গ্রামে তিস্তা নদীর পাড়ে ভাঙন রোধে ৬০ জন হাজীর অংশগ্রহণে নামাজ আদায় ও বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা মো. সম্স উদ্দিন। এতে শ্রীপুর ও কাপাসিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের ৬’শ মানুষ অংশ নেন। মোনাজাতে উপস্থিত প্রবীণ শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন বলেন, গত দুই মাস ধরে অব্যাহত নদী ভাঙনে পাঁচ শতাধিক পরিবারের ভিটে-মাটি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙ্গনের মুখে আরও কয়েকটি গ্রাম।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী মজিবর রহমান উপস্থিত হয়ে এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, নদী ভাঙন রোধে পরিকল্পনা কমিশনে ৪০৬ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্প দাখিল করা হয়েছে। কোনো ধরনের সংশোধনী না থাকলে প্রকল্পটি একনেক সভায় উপস্থাপন হবে। গত ১১ সেপ্টেম্বর গাইবান্ধা-১ সুন্দরগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী জনগুরুত্বপূর্ণ নোটিশটি সংসদে উপস্থাপন করলে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী সুন্দরগঞ্জের নদী ভাঙন রোধ প্রকল্পের বিষয়টি উপস্থাপন করেন এবং অল্প সময়ের মধ্যে কাজ শুরু করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।