ধোনির ভবিষ্যৎ নিয়ে যা বললেন সৌরভ

ধোনির ভবিষ্যৎ নিয়ে যা বললেন সৌরভ

মহেন্দ্র সিং ধোনির অবসর নিয়ে মূলত ২০১৫ বিশ্বকাপের পর থেকেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। আর ২০১৯ বিশ্বকাপের পর তো এই জল্পনা আরও বেড়ে যায়। কেননা ইংল্যান্ড আসরের পর এখন পর্যন্ত তিনি জাতীয় দলের হয়ে একটি ম্যাচেও খেলার সুযোগ পাননি। 


ঘুরে-ফিরে সবার কাছেই চলে আসছে এই একই প্রশ্ন। ধোনির থেকে জবাব না পেয়ে এই প্রশ্ন কখনও যাচ্ছে নির্বাচকদের কাছে, আবার কখনও অধিনায়ক বিরাট কোহলি বা বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলীর কাছে। সৌরভ ধোনির অবসর নিয়ে নতুন করে জানিয়ে দিলেন, ধোনির ভবিষ্যৎ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য এখনও অনেক সময় পড়ে রয়েছে। তিনি এও পরিষ্কার করে দিয়েছেন, টিম ম্যানেজমেন্টের কাছেও বিষয়টি পরিষ্কার।

এর আগেও বিসিসিআই সভাপতির দায়িত্ব নেওয়ার পর সৌরভ জানিয়েছিলেন, ধোনিকে যোগ্য সম্মান দেওয়া হবে।

গাঙ্গুলী বলেন, ‘এই ব্যাপারে স্বচ্ছতা রয়েছে আমাদের মধ্যে। কিন্তু কিছু ব্যাপারে প্রকাশ্যে কথা বলা যায় না। ধোনিকে নিয়ে আমাদের ভাবনা যথাসময়েই জানতে পারবেন আপনারা।’

তিনি আরও বলেন, ‘বোর্ড, ধোনি ও নির্বাচকদের কাছে পুরো বিষয়টি একদম পরিষ্কার। ধোনির মতো একজন চ্যাম্পিয়নকে নিয়ে যখন কথায় হয়, তখন পুরো বিষয়টি বন্ধ দরজার ভিতরে হওয়া উচিৎ। আর সেটাও খুব স্বচ্ছ এবং সকলেই জানে বিষয়টি কোথায় দাঁড়িয়ে রয়েছে।'

এর আগে ধোনি কাছে তার ভবিষ্যত সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি সোজা বলেন দেন, ‘জানুয়ারি পর্যন্ত কোনো প্রশ্ন নয়।’

আর ভারতীয় দলের কোচ কোচ রবি শাস্ত্রী জানিয়েছিলেন, অাসছে আইপিএলই মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারতীয় দলের ভবিষ্যৎ ঠিক করবে। এমনকি ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল গঠনে এই টুর্নামেন্টটি সাহায্য করবে বলে মনে করেন তিনি।

ধোনি প্রসঙ্গে শাস্ত্রী বলেন, ‘সবকিছু নির্ভর করছে যখন সে খেলা শুরু করবে ও আইপিএলে সে কেমন খেলে। উইকেটের পেছনে অন্যরা কেমন করে আর তার পারফরম্যান্স কেমন হয়। আইপিএল বিশাল এক টুর্নামেন্ট। আর এটাই সম্ভবত বিশ্বকাপের আগে শেষ টুর্নামেন্ট।’

ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে ধোনিই একমাত্র অধিনায়ক, যার দখলে রয়েছে আইসিসির অধীনে দুটি ট্রফি। ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০১১ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ট্রফি জয়।

এদিকে ভারতীয় দলে এখন ধোনি থেকে বেশি ঋষভ পন্থকে নিয়ে চিন্তা করা হচ্ছে। তাইতো বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে তাকে ছেড়ে দিয়ে সৈয়দ মুশতাক আলী টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল।